পৃথিবীর বুকে মিলল রহস্যময় গর্ত, তবে কী সত্যিই এসেছিল ভিনগ্রহীরা

First Published 7, Sep 2020, 4:42 PM

রাশিয়ার সাইবেরিয়ার তুন্দ্রা অঞ্চল দিয়ে হেলিকপ্টারে যাওয়ার সময় সেদেশর এক টিভি সাংবাদিক সম্প্রতি বিশাল এক গর্তের ছবি তুলেছেন। বিজ্ঞানীদের ধারণা, গর্তটি ১০০ ফুট গভীর এবং ৯০ ফুট চওড়া। ঠিক কী কারণে এই গর্তটি তৈরি হলো তা নিয়েই এখন জোড় জল্পনা শুরু হয়েছে।
 

<p><strong>সাইবেরিয়ার তুন্দ্রা অঞ্চল দিয়ে হেলিকপ্টারে যাওয়ার সময় রাশিয়ার এক টিভি সাংবাদিক বিশাল এক গর্তের ছবি তুলেছেন।&nbsp;</strong></p>

সাইবেরিয়ার তুন্দ্রা অঞ্চল দিয়ে হেলিকপ্টারে যাওয়ার সময় রাশিয়ার এক টিভি সাংবাদিক বিশাল এক গর্তের ছবি তুলেছেন। 

<p><strong>ঠিক কী কারণে গর্তটি হলো সে বিষয়ে এখনো নিশ্চিত নন গবেষকেরা। তবে জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে এমন গর্ত হয়ে থাকতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।</strong></p>

ঠিক কী কারণে গর্তটি হলো সে বিষয়ে এখনো নিশ্চিত নন গবেষকেরা। তবে জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে এমন গর্ত হয়ে থাকতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

<p><strong>এই অঞ্চলে ২০১৩ সালে এমন একটি গর্তের সন্ধান পাওয়া যায়। সেই গর্তের চেয়ে নতুনটি অনেক বড়।</strong></p>

এই অঞ্চলে ২০১৩ সালে এমন একটি গর্তের সন্ধান পাওয়া যায়। সেই গর্তের চেয়ে নতুনটি অনেক বড়।

<p><strong>এই অঞ্চলে এর আগে মোট ৮ টি গর্ত দেখা যায়। সেসব নিয়ে অনেক গুজব প্রচলিত থাকলেও বিজ্ঞানীরা বলে থাকেন, মিথেন গ্যাসের বিস্ফোরণ থেকে এমন গর্ত হয়।</strong></p>

এই অঞ্চলে এর আগে মোট ৮ টি গর্ত দেখা যায়। সেসব নিয়ে অনেক গুজব প্রচলিত থাকলেও বিজ্ঞানীরা বলে থাকেন, মিথেন গ্যাসের বিস্ফোরণ থেকে এমন গর্ত হয়।

<p><strong>২০১৭ সালের দিকে গবেষকেরা এমনি একটি গর্তের মাটি সংগ্রহ করেন। ওই সময় বলা হয়েছিল, এই গর্ত মুহূর্তে তৈরি হয় না। অন্তত কয়েক বছর সময় লাগে।</strong></p>

২০১৭ সালের দিকে গবেষকেরা এমনি একটি গর্তের মাটি সংগ্রহ করেন। ওই সময় বলা হয়েছিল, এই গর্ত মুহূর্তে তৈরি হয় না। অন্তত কয়েক বছর সময় লাগে।

<p><strong>রাশিয়ার তুন্দ্রা অঞ্চলে শীতে দুর্বিষহ অবস্থার সৃষ্টি হয়। মাঝে মাঝে আসে প্রবল তুষারঝড়। এরপর আবহাওয়া আবার পাল্টে গেলে মিথেনের মতো বিভিন্ন গ্যাসের বিস্ফোরণ হয়। বিজ্ঞানীরা এর জন্য জলবায়ু পরিবর্তনকে দায়ী করে থাকেন।</strong></p>

রাশিয়ার তুন্দ্রা অঞ্চলে শীতে দুর্বিষহ অবস্থার সৃষ্টি হয়। মাঝে মাঝে আসে প্রবল তুষারঝড়। এরপর আবহাওয়া আবার পাল্টে গেলে মিথেনের মতো বিভিন্ন গ্যাসের বিস্ফোরণ হয়। বিজ্ঞানীরা এর জন্য জলবায়ু পরিবর্তনকে দায়ী করে থাকেন।

loader