করোনা ভ্যাকসিন 'স্পুটনিক ভি'র উৎপাদনে ভারতের সহযোগিতা চাইছে রাশিয়া, দিল্লির কাছে এল প্রস্তাব

First Published 21, Aug 2020, 8:46 AM

বিশ্বজুড়ে করোনা সংক্রমণ বেড়েই চলেছে। মারণ ভাইরাসকে জয় করতে ভঅযাকসিনের জন্য অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছে গোটা দুনিয়া। যদিও এর মধ্যেই করোনার ভ্যাকসিন তারা আবিষ্কার করে ফেলেছে বলে দাবি করেছে রাশিয়া। সেই ভ্যাকসিনও বাণিজ্যিক ভাবে উৎপাদনের পথে পুতিনের দেশ। তবে নিজেদের তৈরি  স্পুটনিক ভি নামের সেই ভ্যাকসিন ভারতের সঙ্গে মিলেই উৎপাদন করতে চাইছে রাশিয়া। 

<p style="text-align: justify;"><strong>কয়েক দিন আগেই রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন জানিয়েছেন, তাঁর দেশ সবার আগে করোনার ভ্যাকসিন আবিষ্কার করে ফেলেছে। সেই ভ্যাকসিন ইতিমধ্যেই তাঁর মেয়ে- সহ অনেকের শরীরে প্রয়োগ করা হয়েছে। ভ্যাকসিনে ভাল কাজ করছে বলেও জানান তিনি।</strong></p>

কয়েক দিন আগেই রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন জানিয়েছেন, তাঁর দেশ সবার আগে করোনার ভ্যাকসিন আবিষ্কার করে ফেলেছে। সেই ভ্যাকসিন ইতিমধ্যেই তাঁর মেয়ে- সহ অনেকের শরীরে প্রয়োগ করা হয়েছে। ভ্যাকসিনে ভাল কাজ করছে বলেও জানান তিনি।

<p><strong>স্পুটনিক ভি নামের এই ভ্যাকসিন আবিষ্কার করেছে রাশিয়ার গ্যামেলিয়া রিসার্চ ইনস্টিটিউট অফ এপিডেমায়োলজি অ্যান্ড মাইক্রোবায়োলজি নামের একটি সংস্থা। তাদের সঙ্গে রাশিয়ান ডিরেক্ট ইনভেস্টমেন্ট ফান্ডের সহযোগিতা ছিল।</strong><br />
&nbsp;</p>

স্পুটনিক ভি নামের এই ভ্যাকসিন আবিষ্কার করেছে রাশিয়ার গ্যামেলিয়া রিসার্চ ইনস্টিটিউট অফ এপিডেমায়োলজি অ্যান্ড মাইক্রোবায়োলজি নামের একটি সংস্থা। তাদের সঙ্গে রাশিয়ান ডিরেক্ট ইনভেস্টমেন্ট ফান্ডের সহযোগিতা ছিল।
 

<p><strong>&nbsp;সেই ভ্যাকসিন &nbsp;তৈরির জন্য ভারতের সঙ্গে পার্টনারশিপে কাজ করতে চাইছে মস্কো। ভারতকে নিজেদের ‘প্রোডাকশন পার্টনার’ হিসেবে চাইছে রাশিয়া।এমনটাই জানিয়েছেন রাশিয়ান ডিরেক্ট ইনভেস্টমেন্ট ফান্ডের সিইও কিরিল দিমিত্রেভ। এই ভ্যাকসিন তৈরির মাস্টারমাইন্ড দিমিত্রেভ। তিনি আরও জানিয়েছেন, ইতিমধ্যেই ভারতীয় সংস্থাগুলির সঙ্গে যোগাযোগ শুরু করেছে মস্কো।</strong></p>

 সেই ভ্যাকসিন  তৈরির জন্য ভারতের সঙ্গে পার্টনারশিপে কাজ করতে চাইছে মস্কো। ভারতকে নিজেদের ‘প্রোডাকশন পার্টনার’ হিসেবে চাইছে রাশিয়া।এমনটাই জানিয়েছেন রাশিয়ান ডিরেক্ট ইনভেস্টমেন্ট ফান্ডের সিইও কিরিল দিমিত্রেভ। এই ভ্যাকসিন তৈরির মাস্টারমাইন্ড দিমিত্রেভ। তিনি আরও জানিয়েছেন, ইতিমধ্যেই ভারতীয় সংস্থাগুলির সঙ্গে যোগাযোগ শুরু করেছে মস্কো।

<p><strong>রাশিয়া দাবি করছে করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে স্পুটনিক ভি ভ্যাকসিন উপযোগী এবং এর তেমন কোনও পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই। সেই দাবি নিয়ে একাধিক বিশেষজ্ঞ প্রশ্ন তুললেও, এই ভ্যাকসিনের চাহিদা কিন্তু তুঙ্গে।&nbsp;</strong></p>

রাশিয়া দাবি করছে করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে স্পুটনিক ভি ভ্যাকসিন উপযোগী এবং এর তেমন কোনও পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই। সেই দাবি নিয়ে একাধিক বিশেষজ্ঞ প্রশ্ন তুললেও, এই ভ্যাকসিনের চাহিদা কিন্তু তুঙ্গে। 

<p><strong>রাশিয়ার ওই আধিকারিক বলছেন,”মস্কো ভারতে স্পুটনিক ভি তৈরি করতে চায়। ভারত, ভারতের ওষুধ উৎপাদনকারী সংস্থা থেকে শুরু করে ভারতীয় বিজ্ঞানী। সকলের সঙ্গে আমাদের দারুন সম্পর্ক। ওঁরা আমাদের প্রযুক্তিটা বোঝে।”</strong></p>

রাশিয়ার ওই আধিকারিক বলছেন,”মস্কো ভারতে স্পুটনিক ভি তৈরি করতে চায়। ভারত, ভারতের ওষুধ উৎপাদনকারী সংস্থা থেকে শুরু করে ভারতীয় বিজ্ঞানী। সকলের সঙ্গে আমাদের দারুন সম্পর্ক। ওঁরা আমাদের প্রযুক্তিটা বোঝে।”

<p><strong>দিমিত্রেভ বলছিলেন, “আমরা প্রধানমন্ত্রী মোদীর ভাষণ শুনেছি। তিনি ভারতে ভ্যাকসিন তৈরির জন্য প্রস্তত। ভারত ইতিমধ্যেই ভ্যাকসিনের জন্য প্রচুর বিনিয়োগ করেছে। প্রথম সারির বহু সংস্থা এবং উৎপাদন ক্ষমতা ভারতে এমনিতেই আছে। সেজন্যই মস্কো ভারতে স্পুটনিক ভি তৈরি করতে চায়।”&nbsp;</strong></p>

দিমিত্রেভ বলছিলেন, “আমরা প্রধানমন্ত্রী মোদীর ভাষণ শুনেছি। তিনি ভারতে ভ্যাকসিন তৈরির জন্য প্রস্তত। ভারত ইতিমধ্যেই ভ্যাকসিনের জন্য প্রচুর বিনিয়োগ করেছে। প্রথম সারির বহু সংস্থা এবং উৎপাদন ক্ষমতা ভারতে এমনিতেই আছে। সেজন্যই মস্কো ভারতে স্পুটনিক ভি তৈরি করতে চায়।” 

<p><strong>রাশিয়ার ওই আধিকারিক জানিয়েছেন, ভারত ছাড়াও সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরশাহীর মতো দেশের সঙ্গেও আজ করছেন তাঁরা। আসলে রাশিয়া চায়, প্রচুর পরিমাণে ভ্যাকসিনটি তৈরি করতে। যাতে, সবার কাছে তা সহজে পৌঁছে দেওয়া যায়।&nbsp;</strong><br />
&nbsp;</p>

রাশিয়ার ওই আধিকারিক জানিয়েছেন, ভারত ছাড়াও সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরশাহীর মতো দেশের সঙ্গেও আজ করছেন তাঁরা। আসলে রাশিয়া চায়, প্রচুর পরিমাণে ভ্যাকসিনটি তৈরি করতে। যাতে, সবার কাছে তা সহজে পৌঁছে দেওয়া যায়। 
 

<p><strong>রাশিয়ার দাবি, ইতিমধ্যেই বিশ্বের ২০টি দেশ এই ভ্যাকসিন কিনতে আগ্রহ প্রকাশ করেছে। তবে তাঁরা আগ্রহী ভারতকে নিয়েই। নিজেদের তৈরি ভ্যাকসিন স্পুটনিক ভি &nbsp;এবার ভারতের মাটিতেই তৈরি করতে চায় রাশিয়া। এমনটাই জানিয়েছেন কিরিল দিমিত্রেভ।</strong></p>

রাশিয়ার দাবি, ইতিমধ্যেই বিশ্বের ২০টি দেশ এই ভ্যাকসিন কিনতে আগ্রহ প্রকাশ করেছে। তবে তাঁরা আগ্রহী ভারতকে নিয়েই। নিজেদের তৈরি ভ্যাকসিন স্পুটনিক ভি  এবার ভারতের মাটিতেই তৈরি করতে চায় রাশিয়া। এমনটাই জানিয়েছেন কিরিল দিমিত্রেভ।

<p><strong>দিমিত্রেভ আরও বলেন, “আমরা শুধুমাত্র রাশিয়া নয়, সংযুক্ত আরব আমিরশাহী, ব্রাজিল ও ভারতে এই ভ্যাকসিনের ট্রায়াল শুরু করতে চাইছি। এশিয়া, লাতিন আমেরিকা, ইতালি ও বিশ্বের অন্যান্য প্রান্ত থেকে এই ভ্যাকসিনের প্রবল চাহিদা থাকায় আমরা আরও ৫টি দেশে এই ভ্যাকসিনের উৎপাদন করতে চাইছি।”</strong></p>

দিমিত্রেভ আরও বলেন, “আমরা শুধুমাত্র রাশিয়া নয়, সংযুক্ত আরব আমিরশাহী, ব্রাজিল ও ভারতে এই ভ্যাকসিনের ট্রায়াল শুরু করতে চাইছি। এশিয়া, লাতিন আমেরিকা, ইতালি ও বিশ্বের অন্যান্য প্রান্ত থেকে এই ভ্যাকসিনের প্রবল চাহিদা থাকায় আমরা আরও ৫টি দেশে এই ভ্যাকসিনের উৎপাদন করতে চাইছি।”

<p><strong>যদিও এখনও তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়াল হয়নি এই ভ্যাকসিনের। আর তাই রাশিয়ার এই দাবি নিয়ে আমেরিকা ও ব্রিটেনের মতো একাধিক দেশ প্রশ্ন তুলেছে। তাদের দাবি, তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়াল ছাড়াই কী ভাবে একটা ভ্যাকসিনকে ব্যবহারে যোগ্য বলছে রাশিয়া। বর্তমানে &nbsp;পরিস্থিতিতে তাড়াহুড়ো করে কিছু করতে গেলে তার প্রভাব আরও ক্ষতিকারক হতে পারে বলেই আশঙ্কা অনেক বিশেষজ্ঞের। আমেরিকা ও ব্রিটেন জানিয়েছে, রাশিয়ায় তৈরি এই ভ্যাকসিন তাদের দেশে ব্যবহার হবে না। এর মধ্যেই 'স্পুটনিক ভি' উৎপাদনের ভারতের সহযোগিতা চাইল রাশিয়া।</strong></p>

যদিও এখনও তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়াল হয়নি এই ভ্যাকসিনের। আর তাই রাশিয়ার এই দাবি নিয়ে আমেরিকা ও ব্রিটেনের মতো একাধিক দেশ প্রশ্ন তুলেছে। তাদের দাবি, তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়াল ছাড়াই কী ভাবে একটা ভ্যাকসিনকে ব্যবহারে যোগ্য বলছে রাশিয়া। বর্তমানে  পরিস্থিতিতে তাড়াহুড়ো করে কিছু করতে গেলে তার প্রভাব আরও ক্ষতিকারক হতে পারে বলেই আশঙ্কা অনেক বিশেষজ্ঞের। আমেরিকা ও ব্রিটেন জানিয়েছে, রাশিয়ায় তৈরি এই ভ্যাকসিন তাদের দেশে ব্যবহার হবে না। এর মধ্যেই 'স্পুটনিক ভি' উৎপাদনের ভারতের সহযোগিতা চাইল রাশিয়া।

loader