16

কলকাতা বিমানবন্দের সুরক্ষায় আরও কড়াকড়ি। এবার বিমানবন্দরে তেজস্ক্রিয় পদার্থ সনাক্তকরণের জন্য বিশেষ প্রস্তুতি নেওয়া হল। 

Subscribe to get breaking news alerts

26

২৬ অগাস্ট নিরাপত্তা বেষ্টিনি নিশ্চিদ্র করতে মহড়ার আয়োজন করা হয় । অংশ নেওয়া সকলেই এর জন্য বিশেষ পোশাক পরে আসেন । যা মূলত তেজক্রিয় পদার্থ থেকে মূলত রক্ষা করে। 

36

মহড়ার সময় মাইকিং করে ট্রেনিং চলতে থাকে। যাতে তেজক্রিয় পদার্থ সনাকরণের ঘটনার আকস্মিকতা অতর্কিতে কোনও ক্ষতি না হয়ে যায়। বিশেষ করে যেখানে তেজক্রিয় পদার্থের ক্রিয়া বহু বছর ধরে অ্যাকটিভ থাকে।

46

প্রবেশ এবং বাহির দুই পথেও এই নিরাপত্তা বেষ্টনী গড়ে তোলা হয়। আরডিই অর্থাই 'রেডিয়েশন সনাক্তকরণ সরঞ্জাম' বসানো হয় দুই জায়গাতেই। তাই আর কোনওভাবেই কেউ এখন আর তেজক্রিয় পদার্থ নিয়ে ক্ষতি করতে পারবে না। তার আগেই সে এই স্মার্ট সিস্টেমে ধরা পড়বে।  

56

জাতীয় দুর্যোগ প্রতিক্রিয়া বাহিনী, ভারত, কেন্দ্রীয় শিল্প সুরক্ষা বাহিনী - সিআইএসএফ, দমকল বিভাগ, বিধাননগর পুলিশ ও বিমানবন্দর কর্মকর্তারা এই মহড়ায় অংশ নিয়েছিলেন। পরীক্ষার করা জন্য আনা হয় বিশালাকার বড় বড় ট্রে। 
 

66

তেজক্রিয় সনাক্তকরণের সরঞ্জাম বসানো  পর কলকাতা বিমান বন্দরে নিরাপত্তা আরও কয়েক গুন বেড়ে গেল। তাই যাত্রীরাও এখন আগের থেকে অনেক বেশি নিশ্চিন্ত থাকতে পারবে।