বিনামূল্যে বাড়ি বসেই দেখান চিকিৎসক, কোভিডে ই-চেম্বার চালু করল কলকাতা পুরসভা

First Published 6, Sep 2020, 10:11 AM


করোনা আবহে সংক্রমণ থেকে বাঁচতে অনেক চিকিৎসকই চেম্বারে বসছেন না। যদিও রোগীরাও চেম্বারে যেতে সাহস পাচ্ছেন না। সব মিলিয়ে সমস্যার সমধান মিলছে না।  এবার থেকে সম্পূর্ণ বিনামূল্য়ে বাড়ি বসেই চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া যাবে  ই-চেম্বারে।  সমস্যা সমাধানে উদ্যোগী হয়েছে কলকাতা পুরসভা।কলকাতা পুরসভা ও আইএমএ রাজ্য শাখার যৌথ উদ্যোগে তৈরি হয়েছে এই পোর্টাল। এই পোর্টালের মাধ্যমে বিশ্বের যে কোনও প্রান্ত থেকে কলকাতা শহরের ৩৫ জন বিখ্যাত চিকিৎসকদের সঙ্গে সরাসরি ভার্চুয়াল চেম্বারে ভিজিট করতে পারবেন রোগীরা। করোনা পরিস্থিতিতে চিকিৎসক দেখাতে রোগীদের যাতে কোনও অসুবিধার মধ্যে পড়তে না হয় সেই কারণেই এই উদ্যোগ কলকাতা পুরসভার।
 

<p>করোনা আবহে সংক্রমণ থেকে বাঁচতে অনেক চিকিৎসকই চেম্বারে বসছেন না। যদিও রোগীরাও চেম্বারে যেতে সাহস পাচ্ছেন না। সব মিলিয়ে সমস্যার সমধান মিলছে না। &nbsp;এবার থেকে সম্পূর্ণ বিনামূল্য়ে বাড়ি বসেই চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া যাবে &nbsp;ই-চেম্বারে। সমস্যা সমাধানে উদ্যোগী হয়েছে কলকাতা পুরসভা।</p>

করোনা আবহে সংক্রমণ থেকে বাঁচতে অনেক চিকিৎসকই চেম্বারে বসছেন না। যদিও রোগীরাও চেম্বারে যেতে সাহস পাচ্ছেন না। সব মিলিয়ে সমস্যার সমধান মিলছে না।  এবার থেকে সম্পূর্ণ বিনামূল্য়ে বাড়ি বসেই চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া যাবে  ই-চেম্বারে। সমস্যা সমাধানে উদ্যোগী হয়েছে কলকাতা পুরসভা।

<p>কলকাতা পুরসভা &nbsp;ও আইএমএ রাজ্য শাখার যৌথ উদ্যোগে চালু হয়েছে &nbsp;kmc.janupchaar.com. নামে একটি নতুন ওয়েব পোর্টাল।&nbsp;</p>

কলকাতা পুরসভা  ও আইএমএ রাজ্য শাখার যৌথ উদ্যোগে চালু হয়েছে  kmc.janupchaar.com. নামে একটি নতুন ওয়েব পোর্টাল। 

<p>এই পোর্টালের মাধ্যমে বিশ্বের যে কোনও প্রান্ত থেকে কলকাতা শহরের ৩৫ জন বিখ্যাত চিকিৎসকদের সঙ্গে সরাসরি ভার্চুয়াল চেম্বারে ভিজিট করতে পারবেন রোগীরা।&nbsp;করোনা পরিস্থিতিতে চিকিৎসক দেখাতে রোগীদের যাতে কোনও অসুবিধার মধ্যে পড়তে না হয় সেই কারণেই এই উদ্যোগ কলকাতা পুরসভার।</p>

এই পোর্টালের মাধ্যমে বিশ্বের যে কোনও প্রান্ত থেকে কলকাতা শহরের ৩৫ জন বিখ্যাত চিকিৎসকদের সঙ্গে সরাসরি ভার্চুয়াল চেম্বারে ভিজিট করতে পারবেন রোগীরা। করোনা পরিস্থিতিতে চিকিৎসক দেখাতে রোগীদের যাতে কোনও অসুবিধার মধ্যে পড়তে না হয় সেই কারণেই এই উদ্যোগ কলকাতা পুরসভার।

<p><br />
ই-চেম্বারে এই মুহূর্তে &nbsp;চিকিৎসকের সংখ্যা ৩৫ হলেও, পরের দিকে সেই সংখ্যা বাড়িয়ে ১০০ করার পরিকল্পনা রয়েছে। সপ্তাহের যে কোনও এক দিন টানা একঘন্টা ভার্চুয়াল চেম্বারে রোগী দেখবেন এই চিকিৎসকরা।&nbsp;<br />
&nbsp;</p>


ই-চেম্বারে এই মুহূর্তে  চিকিৎসকের সংখ্যা ৩৫ হলেও, পরের দিকে সেই সংখ্যা বাড়িয়ে ১০০ করার পরিকল্পনা রয়েছে। সপ্তাহের যে কোনও এক দিন টানা একঘন্টা ভার্চুয়াল চেম্বারে রোগী দেখবেন এই চিকিৎসকরা। 
 

<p>রোগীদের আগে পোর্টালে গিয়ে দেখে নিতে হবে, কোন চিকিৎসক কবে ভার্চুয়াল চেম্বারে বসছেন। সেই অনুযায়ী নাম লেখাতে হবে। অর্থাৎ ই-রেজিস্ট্রেশন করতে হবে। ভিজিটের আগেই ওই রোগীকে তাঁর যাবতীয় শারীরিক পরীক্ষা নথি স্ক্যান করে&nbsp;সেই কপি আপলোড করে দিতে হবে।</p>

রোগীদের আগে পোর্টালে গিয়ে দেখে নিতে হবে, কোন চিকিৎসক কবে ভার্চুয়াল চেম্বারে বসছেন। সেই অনুযায়ী নাম লেখাতে হবে। অর্থাৎ ই-রেজিস্ট্রেশন করতে হবে। ভিজিটের আগেই ওই রোগীকে তাঁর যাবতীয় শারীরিক পরীক্ষা নথি স্ক্যান করে সেই কপি আপলোড করে দিতে হবে।

<p>এরপরই ওই রোগীকে ভার্চুয়াল চেম্বারে দেখে সেই মতো চিকিৎসক তাঁকে ই-প্রেসক্রিপশন দেবেন। &nbsp; ই-চেম্বারে পুরো পরিষেবাটাই পাওয়া যাবে বিনামূল্যে। ই-চেম্বারে ডাক্তার দেখানোর জন্য কোনও ভিজিট লাগবে না। অনলাইনে চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়ার জন্য এক্ষেত্রে শুধু রোগীকে নেট সংযোগ নিতে হবে। এছাড়া আর কোনও খরচ নেই। &nbsp;</p>

<p><br />
&nbsp;</p>

এরপরই ওই রোগীকে ভার্চুয়াল চেম্বারে দেখে সেই মতো চিকিৎসক তাঁকে ই-প্রেসক্রিপশন দেবেন।   ই-চেম্বারে পুরো পরিষেবাটাই পাওয়া যাবে বিনামূল্যে। ই-চেম্বারে ডাক্তার দেখানোর জন্য কোনও ভিজিট লাগবে না। অনলাইনে চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়ার জন্য এক্ষেত্রে শুধু রোগীকে নেট সংযোগ নিতে হবে। এছাড়া আর কোনও খরচ নেই।  


 

loader