লকাডাউনে চলবে না ফুটবল খেলাও, নাকাচেকিং-র মাঝে ক্ষুদে খেলোয়ারদের বাড়ি পাঠাল পুলিশ

First Published 7, Sep 2020, 10:49 AM

সোমবার ৭ সেপ্টেম্বর পূর্ন দিবস লকডাউন। সকাল ৬টা থেকেই  রাজ্যে লকডাউনের বিধিনিষেধ জারি । আর ইতিমধ্য়েই  শহর ও শহরতলির বুকে আরও কড়া পুলিশ। এদিকে সোমবার সাতসকালে নিউটাউন ডিএলএফ ওয়ানের কাছে খেলা চলছিল। নিউটাউন থানার পুলিশ গিয়ে তাড়া দিয়ে সেখান থেকে তাদের বাড়ি পাঠিয়ে দেয়। সকাল থেকে তৎপর নিউটাউন থানার পুলিশ। শহরের বিভিন্ন রাস্তায় করা নজরদারি পুলিশের। সল্টলেকে আসা এবং সল্টলেক-উল্টোডাঙ্গা ক্রসিংয়ে কড়া নজরদারির পাশাপাশি প্রতিটি গাড়িতে চেকিং চালাচ্ছে কলকাতা পুলিশ। 
 

<p><br />
সোমবার পূর্ন দিবস লকডাউন। সকাল ৬টা থেকেই &nbsp;রাজ্যে লকডাউনের বিধিনিষেধ জারি । আর ইতিমধ্য়েই &nbsp;শহর ও শহরতলির বুকে আরও কড়া পুলিশ।&nbsp;</p>


সোমবার পূর্ন দিবস লকডাউন। সকাল ৬টা থেকেই  রাজ্যে লকডাউনের বিধিনিষেধ জারি । আর ইতিমধ্য়েই  শহর ও শহরতলির বুকে আরও কড়া পুলিশ। 

<p><br />
সোমবার সাতসকালে নিউটাউন ডিএলএফ ওয়ানের কাছে খেলা চলছিল। নিউটাউন থানার পুলিশ গিয়ে তাড়া দিয়ে সেখান থেকে তাদের বাড়ি পাঠিয়ে দেয়। সকাল থেকে তৎপর নিউটাউন থানার পুলিশ।</p>


সোমবার সাতসকালে নিউটাউন ডিএলএফ ওয়ানের কাছে খেলা চলছিল। নিউটাউন থানার পুলিশ গিয়ে তাড়া দিয়ে সেখান থেকে তাদের বাড়ি পাঠিয়ে দেয়। সকাল থেকে তৎপর নিউটাউন থানার পুলিশ।

<p>সোমবার সকাল থেকেই তৎপর বিধাননগর পুলিশ। ওদিকে বেহালা, তারাতলায় চলছে নাকাচেকিং। বাইরে মাস্ক ছাড়া এবং অকারণে বেরোলেই কলকাতা পুলিশ আটক করছে।</p>

সোমবার সকাল থেকেই তৎপর বিধাননগর পুলিশ। ওদিকে বেহালা, তারাতলায় চলছে নাকাচেকিং। বাইরে মাস্ক ছাড়া এবং অকারণে বেরোলেই কলকাতা পুলিশ আটক করছে।

<p>সল্টলেকের বিভিন্ন রাস্তায় করা নজরদারি পুলিশের। সল্টলেকে আসা এবং সল্টলেক-উল্টোডাঙ্গা ক্রসিংয়ে কড়া নজরদারির পাশাপাশি প্রতিটি গাড়িতে চেকিং চালাচ্ছে পুলিশ।&nbsp; তারই সঙ্গে ড্রোনেও চলছে নজরদারি।</p>

সল্টলেকের বিভিন্ন রাস্তায় করা নজরদারি পুলিশের। সল্টলেকে আসা এবং সল্টলেক-উল্টোডাঙ্গা ক্রসিংয়ে কড়া নজরদারির পাশাপাশি প্রতিটি গাড়িতে চেকিং চালাচ্ছে পুলিশ।  তারই সঙ্গে ড্রোনেও চলছে নজরদারি।

<p><br />
কলকাতায় &nbsp;কনটেন্টমেন্ট সংখ্যা আগের থেকে কমেছে। তবে প্রতিবার সাপ্তাহিক লকডাউনে জোর কদমে নাকাচেকিং চলে &nbsp;এবং ড্রোন উড়িয়ে আরও কড়া নজরদারি রাখা হয় শহরের কনটেন্টমেন্ট এলাকাগুলিতে।</p>


কলকাতায়  কনটেন্টমেন্ট সংখ্যা আগের থেকে কমেছে। তবে প্রতিবার সাপ্তাহিক লকডাউনে জোর কদমে নাকাচেকিং চলে  এবং ড্রোন উড়িয়ে আরও কড়া নজরদারি রাখা হয় শহরের কনটেন্টমেন্ট এলাকাগুলিতে।

<p>সোমবার সকাল থেকেই শুনশান শহরের রাস্তাঘাট। পূর্ন লকডাউনের দিনে যারা &nbsp;অতি জরুরী প্রয়োজনে যারা বাইরে বেরিয়েছে নির্দিষ্ট নথি দেখানোর পর তাদেরকে ছেড়ে দেওয়া হচ্ছে এবং যারা কোনও নথি দেখাতে পারছে না তাদের গাড়িতে কেস দিচ্ছে পুলিশ। &nbsp;</p>

সোমবার সকাল থেকেই শুনশান শহরের রাস্তাঘাট। পূর্ন লকডাউনের দিনে যারা  অতি জরুরী প্রয়োজনে যারা বাইরে বেরিয়েছে নির্দিষ্ট নথি দেখানোর পর তাদেরকে ছেড়ে দেওয়া হচ্ছে এবং যারা কোনও নথি দেখাতে পারছে না তাদের গাড়িতে কেস দিচ্ছে পুলিশ।  

<p>শহরের বিভিন্ন মোড়ে গার্ডরেল বসানো হয়েছে, শুনশান ১২ এজেসি বোস রোড ফ্লাইওভারের সংযোগস্থল থেকে সৈয়দ আমীর আলী এভিনিউ। একদিকে গড়িয়াহাট অন্যদিকে পার্কসার্কাস মোড়, সবদিকে &nbsp;কলকাতা পুলিশের পাইলট কার এবং মোটর বাইকে টহলদারি চলছে।</p>

<p><br />
&nbsp;</p>

শহরের বিভিন্ন মোড়ে গার্ডরেল বসানো হয়েছে, শুনশান ১২ এজেসি বোস রোড ফ্লাইওভারের সংযোগস্থল থেকে সৈয়দ আমীর আলী এভিনিউ। একদিকে গড়িয়াহাট অন্যদিকে পার্কসার্কাস মোড়, সবদিকে  কলকাতা পুলিশের পাইলট কার এবং মোটর বাইকে টহলদারি চলছে।


 

loader