সৌন্দর্যের চাবিকাঠি লুকিয়ে রয়েছে অ্যালোভেরাতেই, জেনে নিন ব্যবহার বিধি

First Published 14, Mar 2020, 4:41 PM IST

অ্যালোভেরা হাজারো গুণ রয়েছে তা  আমাদের সকলেরই জানা। ত্বকের ঔজ্জ্বল্য থেকে শারীরিক সমস্যা সবেতেই জুড়ি মেলা ভার অ্যালোভেরার। শরীরের যত্ন থেকে, চুলের যত্ন, সবতেই কেল্লাফতে হয় এই একটি জিনিসে। অনেকের বাড়িতেই এই অ্যালোভেরা গাছ রয়েছে। প্রতিষেধক হিসেবেও দারুণ কার্যকরী এই অ্যালোভেরা।  কিন্তু কীভাবে ব্যবহার করবেন সেই দুশ্চিন্তায় তা আর ব্যবহার করা হয়ে ওঠে না। কিন্তু এই অসামান্য জিনিসটির প্রাকৃতিক সর্বগুণে সম্পন্ন। কী কী ভাবে এই অ্যালোভেরাকে ব্যবহার করা যায়। দেখে নিন একনজরে।

হজম প্রক্রিয়া ভাল করতে অ্যালোভেরার জুড়ি মেলা ভার। এর মধ্যে থাকা অ্যান্টি-ইনফ্লামেটরি উপাদান পাকস্থলী ঠান্ডা রাখে। এবং গ্যাসের সমস্যা দূর করে। প্রতিদিন সকালে অ্যালোভেরার শরবত খেলে অনেক উপকার পাওয়া যায়।

হজম প্রক্রিয়া ভাল করতে অ্যালোভেরার জুড়ি মেলা ভার। এর মধ্যে থাকা অ্যান্টি-ইনফ্লামেটরি উপাদান পাকস্থলী ঠান্ডা রাখে। এবং গ্যাসের সমস্যা দূর করে। প্রতিদিন সকালে অ্যালোভেরার শরবত খেলে অনেক উপকার পাওয়া যায়।

ত্বকের যত্নে অ্যালোভেরার গুরুত্ব অপরিসীম।  বহু বছর ধরে এর ব্যবহার হয়ে আসেছ।  ত্বকে ব়্যাশ, চুলকানি, রোদে পোড়া দাগ দূর করতে অ্যালোভেরার অনেক গুণ রয়েছে।

ত্বকের যত্নে অ্যালোভেরার গুরুত্ব অপরিসীম। বহু বছর ধরে এর ব্যবহার হয়ে আসেছ। ত্বকে ব়্যাশ, চুলকানি, রোদে পোড়া দাগ দূর করতে অ্যালোভেরার অনেক গুণ রয়েছে।

যারা ডায়াবেটিসের সমস্যায় ভুগছেন তাদের জন্য অ্যালোভেরা ভীষণ উপকারি। নিয়মিত অ্যালোভেরার রস খেলে গ্লুকোজের পরিমাণ কম থাকে এবং ডায়াবেটিসও নিয়ন্ত্রণে থাকে।

যারা ডায়াবেটিসের সমস্যায় ভুগছেন তাদের জন্য অ্যালোভেরা ভীষণ উপকারি। নিয়মিত অ্যালোভেরার রস খেলে গ্লুকোজের পরিমাণ কম থাকে এবং ডায়াবেটিসও নিয়ন্ত্রণে থাকে।

চুল পড়া, খুশকির সমস্যা দূর করতে অ্যালোভেরা ভীষণ উপকারি। নারকেল তেলের সঙ্গে অ্যালোভেরা জেল লাগিয়ে সারারাত রেখে দিয়ে পরের দিন শ্যাম্পু করলে এই সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।

চুল পড়া, খুশকির সমস্যা দূর করতে অ্যালোভেরা ভীষণ উপকারি। নারকেল তেলের সঙ্গে অ্যালোভেরা জেল লাগিয়ে সারারাত রেখে দিয়ে পরের দিন শ্যাম্পু করলে এই সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।

অ্যালোভেরার জুস কোলেস্টেরলের মাত্রা কমিয়ে রাখে। এটি দূষিত  রক্ত দেহ থেকে বের করতে সাহায্য করে। এবং হৃদযন্ত্রকে সুস্থ রাখতে সাহায্য করে।

অ্যালোভেরার জুস কোলেস্টেরলের মাত্রা কমিয়ে রাখে। এটি দূষিত রক্ত দেহ থেকে বের করতে সাহায্য করে। এবং হৃদযন্ত্রকে সুস্থ রাখতে সাহায্য করে।

ওজন কমাতেও অ্যালোভেরার জুস অনেক কার্যকরী। অ্যালোভেরার রস নিয়মিত খেলে শরীরের বাড়তি মেদ দূর হয়। কোনওরকম পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া ছাড়াই ওজন কমাতে সাহায্য করে অ্যালোভেরা।

ওজন কমাতেও অ্যালোভেরার জুস অনেক কার্যকরী। অ্যালোভেরার রস নিয়মিত খেলে শরীরের বাড়তি মেদ দূর হয়। কোনওরকম পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া ছাড়াই ওজন কমাতে সাহায্য করে অ্যালোভেরা।

চুলের শুস্ক ভাব দূর করতে অ্যালোভেরা ভীষণ উপকারি। অ্যালোভেরার রসের সঙ্গে আমলকির রস মিশিয়ে চুলে লাগালে চুলের উজ্জ্বলতা বেড়ে যায়। চুলের কন্ডিশনার হিসেবেও কাজ করে অ্যালোভেরা।

চুলের শুস্ক ভাব দূর করতে অ্যালোভেরা ভীষণ উপকারি। অ্যালোভেরার রসের সঙ্গে আমলকির রস মিশিয়ে চুলে লাগালে চুলের উজ্জ্বলতা বেড়ে যায়। চুলের কন্ডিশনার হিসেবেও কাজ করে অ্যালোভেরা।

উজ্জ্বল ত্বক পেতে, বয়সের ছাপ থেকে মুক্তি পেতে গেলে নিয়মিত অ্যালোভেরা জেল লাগান।

উজ্জ্বল ত্বক পেতে, বয়সের ছাপ থেকে মুক্তি পেতে গেলে নিয়মিত অ্যালোভেরা জেল লাগান।

অ্যালোভেরার জুস কোলেস্টেরলের মাত্রা কমিয়ে রাখে। এটি দূষিত  রক্ত দেহ থেকে বের করতে সাহায্য করে। এবং হৃদযন্ত্রকে সুস্থ রাখতে সাহায্য করে।

অ্যালোভেরার জুস কোলেস্টেরলের মাত্রা কমিয়ে রাখে। এটি দূষিত রক্ত দেহ থেকে বের করতে সাহায্য করে। এবং হৃদযন্ত্রকে সুস্থ রাখতে সাহায্য করে।

অ্যালোভেরার জুস দাঁত এবং মাড়ির সমস্যায় উপকারী। এর পাশাপাশি ইনফেকশন নিবারণে সহায়তা করে।

অ্যালোভেরার জুস দাঁত এবং মাড়ির সমস্যায় উপকারী। এর পাশাপাশি ইনফেকশন নিবারণে সহায়তা করে।

গ্লুকোমেনন নামে এক ধরনের অত্যন্ত উপকারী গ্রোথ হরমোন পাওয়া যায় অ্যালোভেরায়। আগুন, সূর্যরশ্মি বা কোনও আঘাত থেকে ত্বকে ছ্যাঁকা, পোড়ার মতো প্রদাহ শুরু হলে, তা কিছুক্ষণের মধ্যেই নিরাময় করতে পারে অ্যালোভেরা।

গ্লুকোমেনন নামে এক ধরনের অত্যন্ত উপকারী গ্রোথ হরমোন পাওয়া যায় অ্যালোভেরায়। আগুন, সূর্যরশ্মি বা কোনও আঘাত থেকে ত্বকে ছ্যাঁকা, পোড়ার মতো প্রদাহ শুরু হলে, তা কিছুক্ষণের মধ্যেই নিরাময় করতে পারে অ্যালোভেরা।

loader