পুজোয় ভ্রমণে সবুজ সংকেত, পর্যটনে আশার আলো, খুলে যাচ্ছে দার্জিলিং-কালিম্পং-এর দরজা

First Published 16, Sep 2020, 9:51 AM

করোনা ভাইরাস কোপ বিয়েছে দেশের সর্বস্তরে। সব ক্ষেত্রই এক কথায় ক্ষতির মুখ দেখেছে বিস্তর। যার মধ্যে অন্যতম হল ট্রাভেল। বন্ধ যানচলাচল, বন্ধ বিমান পরিষেবা, অকারণে মানুষকে বাড়ির বাইরে বেরতে নিশেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছিল। যার ফলে মানুষ মুখ ফিরিযেছে ভ্রমণ থেকে। একে একে হোটেল রেস্টোরার দরজা খুললেও আগের মত লাগাম ছাড়া ভিড়ের দেখা মিলছে না আর। এরই মাঝে নয়া সিদ্ধান্ত নিয়ে নিল দার্জিলিং ও কালিম্পং। 

<p>গরমের ছুটি হোক বা শীতের ছুটি, পুজোর ভ্রমেণের মেজাজই ভিন্ন। তিন মাস আগে থেকে শুরু হয়ে যায় প্রস্তুতি, টিকিট কাটা থেকে শুরু করে হোটেল বুকিং। </p>

গরমের ছুটি হোক বা শীতের ছুটি, পুজোর ভ্রমেণের মেজাজই ভিন্ন। তিন মাস আগে থেকে শুরু হয়ে যায় প্রস্তুতি, টিকিট কাটা থেকে শুরু করে হোটেল বুকিং। 

<p>এক কথায় বলতে গেলে সকলের প্রিয় দার্জিলিং-এ তিল ধারণের জায়গা পাওয়া যেত না। তবে সেসব এখন অতীত।</p>

এক কথায় বলতে গেলে সকলের প্রিয় দার্জিলিং-এ তিল ধারণের জায়গা পাওয়া যেত না। তবে সেসব এখন অতীত।

<p>চলতি বছরে লকডাউনের কোপে পড়ে মানুষের নাভীশ্বাস উঠে যাওয়ার যোগার। দার্জিলিং তো দূর, গড়িয়াহাট থেকে হাতিবাগান ঘুরে বেড়ানোতেও পড়েছিল লাগাম। </p>

চলতি বছরে লকডাউনের কোপে পড়ে মানুষের নাভীশ্বাস উঠে যাওয়ার যোগার। দার্জিলিং তো দূর, গড়িয়াহাট থেকে হাতিবাগান ঘুরে বেড়ানোতেও পড়েছিল লাগাম। 

<p>তবে এবার ছন্দে ফেরার পালা। পুজোতে কোথাও একটা ঘুরতে যাওয়ার কথা যারা পরিকল্পনা করছেন, তাঁদের জন্য রইল সুখবর। </p>

তবে এবার ছন্দে ফেরার পালা। পুজোতে কোথাও একটা ঘুরতে যাওয়ার কথা যারা পরিকল্পনা করছেন, তাঁদের জন্য রইল সুখবর। 

<p>খুলে যাচ্ছে দার্জিলিং ও কালিম্পং-এর দরজা। সম্প্রতি এমনই নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে। নিয়ম ও সতর্কতা মেনেই খুলতে হবে হোটেলের দরজা। </p>

খুলে যাচ্ছে দার্জিলিং ও কালিম্পং-এর দরজা। সম্প্রতি এমনই নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে। নিয়ম ও সতর্কতা মেনেই খুলতে হবে হোটেলের দরজা। 

<p>যদিও এখনও পর্যন্ত হোমস্টের জন্য কোনও নির্দেশিকাই জারি করা হয়নি। তবে শীঘ্রই এই নিয়ে বৈঠক করা হবে।</p>

যদিও এখনও পর্যন্ত হোমস্টের জন্য কোনও নির্দেশিকাই জারি করা হয়নি। তবে শীঘ্রই এই নিয়ে বৈঠক করা হবে।

<p>পুজোর আগেই পর্যটন দুনিয়া দেখছে আশার আলো। এই সময়ই মূল রোজগার। টানা ছয় মাস বন্ধের পর এবার শৈল শহর সেজে উঠছে। </p>

পুজোর আগেই পর্যটন দুনিয়া দেখছে আশার আলো। এই সময়ই মূল রোজগার। টানা ছয় মাস বন্ধের পর এবার শৈল শহর সেজে উঠছে। 

<p>দার্জিলিঙের জেলাশাসক এস পুন্নমবল্লম জানিয়েছেন, পর্যটকদের সুরক্ষাই হবে প্রধান লক্ষ্য। যদিও ঘুরতে যাওয়া নিয়ে এখনও কোনও স্পষ্ট ধারনা দেওয়া হয়নি হোটেল মালিক গুলোকে। </p>

দার্জিলিঙের জেলাশাসক এস পুন্নমবল্লম জানিয়েছেন, পর্যটকদের সুরক্ষাই হবে প্রধান লক্ষ্য। যদিও ঘুরতে যাওয়া নিয়ে এখনও কোনও স্পষ্ট ধারনা দেওয়া হয়নি হোটেল মালিক গুলোকে। 

loader