19

মৌসুনি আইল্যান্ড বর্তমানে বাংলার ভ্রমণ তালিকার মধ্যে এক অন্যতম নাম।

Subscribe to get breaking news alerts

29

সম্প্রতি পর্যটকেরা হাতের কাছে সস্তা ট্রিট মানে বেছে নিচ্ছি এই আইল্যান্ডকে। একরাত্রি বা দুরাতের জন্য থেকেই আসা যায় এই ডেস্টিনেশন।

39

বকখালির পাশে থাকা এই লোকেশন এককথায় সাধ্যের মধ্যে পারফেক্ট। অ্যাডভেঞ্চার থেকে শুরু করে বন ফায়ার সামনে জল জঙ্গল এক ভিন্ন স্বাদের ঠিকানা।

49

রয়েছে টেন্টে থাকার সুবিধা। দুবেলা খাবার সকালে ব্রেকফাস্ট নিয়ে মাথাপিছু খরচ 1150 টাকা মাত্র।
 

59

সপ্তাহের শেষ কটা দিনে সব থেকে বেশি তাই আগে থেকেই বুকিং করে আসলে মিলবে বিশেষ সুবিধা।

69

ঢোকা মাত্রই মিলবে একটি আস্ত ডাব সেখানকার ওয়েলকাম ড্রিঙ্ক। এরপর বেলায় ভাত সবজি ডাল মাছ সহকারে ভুরিভোজ।

79

খর বাঁশের ছাউনি দেওয়া জঙ্গলে ঘেরা ছোট্ট পরিসরে সন্ধ্যেটা এক অন্য আমেজের। টুনি বাল্ব দিয়ে সাজিয়ে তোলা হয় গোটা টেন। চলে দেদার আড্ডা।

89

সন্ধ্যে হলেই পকোড়া মুড়ি চা আর অতিরিক্ত 300 টাকা দিলেই মিলবে বারবিকিউ চিকেন। সকলের সামনে বসানো হবে চিকেন রোস্ট।
 

99

তবে এই আইল্যান্ড থেকে বেরিয়ে আশে পাশের গ্রামে ঘোড়া বা চারপাশটা ঘুরে দেখাও এক্কেবারে নিষেধ। কবিদের জন্য গ্রামের মানুষ খুব একটা পছন্দ করছে না এই পর্যটকদের আনাগোনা।