প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আগেই চমক দিতে মরিয়া ট্রাম্প, নভেম্বরেই আমেরিকায় আসছে করোনা ভ্যাকসিন

First Published 3, Sep 2020, 12:59 PM

আগামী নভেম্বরেই মার্কিন মুলুকে রাষ্ট্রপতি নির্বাচন। আর এই নির্বাচনে জিতে দ্বিতীয়বার প্রেসিডেন্টের চেয়ারে বসতে মরিয়া ডোনাল্ড ট্রাম্প। সেই কারণে নির্বাচনের আগেই দেশে করোনার ভ্যাকসিন নিয়ে আসতে মরিয়া ট্রাম্প প্রশাসন। শোনা যাচ্ছে ১ নভেম্বর সেদেশের বাজারে ভ্যাকসিন চলে আসতে পারে। অন্তত ট্রাম্প প্রশাসনের এক নির্দেশিকাকে ঘিরে এই জল্পনা জোরাল হচ্ছে।

<p><strong>গোটা বিশ্বকে চমকে দিয়ে রেকর্ড টাইমের মধ্যে করোনা ভ্যাকসিন 'স্পুটনিক ৫' আবিষ্কার করে ফেলেছে রাশিয়া। &nbsp;ভ্যাকসিন তৈরির দৌড়ে অনেকটা এগিয়েছে অক্সফোর্ড এবং অ্যাস্ট্রোজেনেকাও। তাই নিজের দেশে ভ্যাকসিন নিয়ে আসার ব্যাপারে আর দেরি করতে চাইছেন না মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।</strong></p>

গোটা বিশ্বকে চমকে দিয়ে রেকর্ড টাইমের মধ্যে করোনা ভ্যাকসিন 'স্পুটনিক ৫' আবিষ্কার করে ফেলেছে রাশিয়া।  ভ্যাকসিন তৈরির দৌড়ে অনেকটা এগিয়েছে অক্সফোর্ড এবং অ্যাস্ট্রোজেনেকাও। তাই নিজের দেশে ভ্যাকসিন নিয়ে আসার ব্যাপারে আর দেরি করতে চাইছেন না মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

<p><strong>সামনের নভেম্বরেই আমেরিকায় প্রেসিডেন্ট নির্বাচন। আর এই মুহূর্তে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে করোনা পরিস্থিতি এবং অর্থনীতি দুই দিক থেকেই বেশ চাপে ট্রাম্প প্রশাসন। তাই মার্কিন প্রেসিডেন্ট এবার তড়িঘড়ি করোনার ভ্যাকসিন এনে সবাইকে চমকে দিতে চাইছেন।&nbsp;</strong></p>

সামনের নভেম্বরেই আমেরিকায় প্রেসিডেন্ট নির্বাচন। আর এই মুহূর্তে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে করোনা পরিস্থিতি এবং অর্থনীতি দুই দিক থেকেই বেশ চাপে ট্রাম্প প্রশাসন। তাই মার্কিন প্রেসিডেন্ট এবার তড়িঘড়ি করোনার ভ্যাকসিন এনে সবাইকে চমকে দিতে চাইছেন। 

<p><strong>শোনা যাচ্ছে, ১ নভেম্বরই আমেরিকায় করোনার টিকা বণ্টন শুরু করে দিতে চান ট্রাম্প । সেজন্য বিভিন্ন অঙ্গরাজ্যের সরকারকে প্রস্তুত থাকতেও নির্দেশ দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট।</strong></p>

শোনা যাচ্ছে, ১ নভেম্বরই আমেরিকায় করোনার টিকা বণ্টন শুরু করে দিতে চান ট্রাম্প । সেজন্য বিভিন্ন অঙ্গরাজ্যের সরকারকে প্রস্তুত থাকতেও নির্দেশ দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট।

<p><br />
<strong>ট্রাম্প প্রশাসনের এক নির্দেশিকাকে ঘিরে এই জল্পনা আরও জোরাল হয়েছে। ওই নির্দেশিকায় আমেরিকার সবকটি প্রদেশকে বলা হয়েছে, নভেম্বরের ১ তারিখ থেকে করোনা ভ্যাকসিনের সরবরাহ ও বণ্টনের জন্য তৈরি থাকতে।</strong><br />
&nbsp;</p>


ট্রাম্প প্রশাসনের এক নির্দেশিকাকে ঘিরে এই জল্পনা আরও জোরাল হয়েছে। ওই নির্দেশিকায় আমেরিকার সবকটি প্রদেশকে বলা হয়েছে, নভেম্বরের ১ তারিখ থেকে করোনা ভ্যাকসিনের সরবরাহ ও বণ্টনের জন্য তৈরি থাকতে।
 

<p style="text-align: justify;"><strong>মার্কিন ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশন ইঙ্গিত দিয়েছে, ট্রায়াল পর্ব শেষ হওয়ার আগেই জরুরি ভিত্তিতে ভ্যাকসিন বাজারে আনার অনুমতি দেওয়া হতে পারে।</strong></p>

মার্কিন ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশন ইঙ্গিত দিয়েছে, ট্রায়াল পর্ব শেষ হওয়ার আগেই জরুরি ভিত্তিতে ভ্যাকসিন বাজারে আনার অনুমতি দেওয়া হতে পারে।

<p><strong>সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন (সিডিসি)-এর অধিকর্তা রবার্ট রেডফিল্ড গত ২৭ তারিখ একটি চিঠির মাধ্যমে ভ্যাকসিন বণ্টন কেন্দ্রের আবেদনপত্র চেয়ে সকলের কাছে আহ্বান করেন।</strong></p>

সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন (সিডিসি)-এর অধিকর্তা রবার্ট রেডফিল্ড গত ২৭ তারিখ একটি চিঠির মাধ্যমে ভ্যাকসিন বণ্টন কেন্দ্রের আবেদনপত্র চেয়ে সকলের কাছে আহ্বান করেন।

<p><strong>সূত্রের খবর, বুধবার হোয়াইট হাউস থেকে এক ভারচুয়াল কনফারেন্সে ট্রাম্প রাজ্যগুলিকে জানিয়ে দিয়েছেন ভ্যাকসিন আসবে নভেম্বরের শুরুতেই। এবং রাজ্যগুলিকে তা বিতরণ করার জন্য চূড়ান্ত পরিকল্পনা করে ফেলতে হবে। করোনার ভ্যাকসিন কীভাবে বিতরণ হবে, তা ঠিক করতে হবে রাজ্যগুলিকেই, জানিয়ে দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট।</strong></p>

সূত্রের খবর, বুধবার হোয়াইট হাউস থেকে এক ভারচুয়াল কনফারেন্সে ট্রাম্প রাজ্যগুলিকে জানিয়ে দিয়েছেন ভ্যাকসিন আসবে নভেম্বরের শুরুতেই। এবং রাজ্যগুলিকে তা বিতরণ করার জন্য চূড়ান্ত পরিকল্পনা করে ফেলতে হবে। করোনার ভ্যাকসিন কীভাবে বিতরণ হবে, তা ঠিক করতে হবে রাজ্যগুলিকেই, জানিয়ে দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট।

<p><strong>ট্রাম্প প্রশাসনের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, জরুরি পণ্যের সঙ্গে যুক্ত কর্মী, নিরাপত্তাকর্মী, প্রবীণ নাগরিক ও বিপদসীমায় থাকা জনগোষ্ঠীর সদস্যদের প্রথম ওই ভ্যাকসিন &nbsp;দেওয়া হবে।</strong></p>

ট্রাম্প প্রশাসনের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, জরুরি পণ্যের সঙ্গে যুক্ত কর্মী, নিরাপত্তাকর্মী, প্রবীণ নাগরিক ও বিপদসীমায় থাকা জনগোষ্ঠীর সদস্যদের প্রথম ওই ভ্যাকসিন  দেওয়া হবে।

<p><strong>সূত্রের খবর, করোনার টিকা তৈরির শেষ ধাপে পৌঁছে গিয়েছে মার্কিন সংস্থা মোডার্না আইএনসি এবং ফাইজার আইএনসি। মোডার্না মার্কিন সরকারের সহায়তায় গবেষণার তৃতীয় পর্যায়ে ৩০ হাজার স্বেচ্ছাসেবীর উপর টিকার চূড়ান্ত পরীক্ষা শুরু করেছে। অন্যদিকে ফাইজারের টিকার ট্রায়াল চলছে বিশ্বের বহু দেশে। দুটি টিকাই ট্রায়ালের একেবারে শেষপর্যায়ে। কিন্তু নভেম্বরের আগে এদের ট্রায়াল শেষ হবে কিনা তা স্পষ্ট নয়। সূত্রের খবর, ট্রায়াল শেষ না হলেও নির্বাচনকে মাথায় রেখে নভেম্বরের শুরুতে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প টিকার আগমনের কথা ঘোষণা করে দিতে পারেন।</strong></p>

সূত্রের খবর, করোনার টিকা তৈরির শেষ ধাপে পৌঁছে গিয়েছে মার্কিন সংস্থা মোডার্না আইএনসি এবং ফাইজার আইএনসি। মোডার্না মার্কিন সরকারের সহায়তায় গবেষণার তৃতীয় পর্যায়ে ৩০ হাজার স্বেচ্ছাসেবীর উপর টিকার চূড়ান্ত পরীক্ষা শুরু করেছে। অন্যদিকে ফাইজারের টিকার ট্রায়াল চলছে বিশ্বের বহু দেশে। দুটি টিকাই ট্রায়ালের একেবারে শেষপর্যায়ে। কিন্তু নভেম্বরের আগে এদের ট্রায়াল শেষ হবে কিনা তা স্পষ্ট নয়। সূত্রের খবর, ট্রায়াল শেষ না হলেও নির্বাচনকে মাথায় রেখে নভেম্বরের শুরুতে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প টিকার আগমনের কথা ঘোষণা করে দিতে পারেন।

<p><strong>কয়েক দিন আগেই মার্কিন রাষ্ট্রপতি ট্রাম্প বলেছিলেন, বছরের শেষ হওয়ার আগেই কোভিডের টিকা মিলবে। তারপরে এল এই খবর, যে ভোটের আগেই শুরু হচ্ছে টিকা বিলির প্রক্রিয়া। এখনও পর্যন্ত করোনায় মারা গিয়েছেন ১.৮০ লক্ষ আমেরিকান।&nbsp;</strong></p>

কয়েক দিন আগেই মার্কিন রাষ্ট্রপতি ট্রাম্প বলেছিলেন, বছরের শেষ হওয়ার আগেই কোভিডের টিকা মিলবে। তারপরে এল এই খবর, যে ভোটের আগেই শুরু হচ্ছে টিকা বিলির প্রক্রিয়া। এখনও পর্যন্ত করোনায় মারা গিয়েছেন ১.৮০ লক্ষ আমেরিকান। 

loader