এবারের কালীপুজোয় মিলবে 'বাজির স্বাদ', অভিনব উদ্য়োগে তাক লাগালেন রায়গঞ্জের দম্পতি

First Published 10, Nov 2020, 4:57 PM

করোনা আতঙ্কে এবার কালীপুজোয় বাজিতে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে কলকাতা হাইকোর্ট। কিন্তু চকোলেট খেতে তো আপত্তি নেই! দীপাবলীতে তাক লাগিয়ে দিলেন রায়গঞ্জের এক দম্পতি। টেলিফোনে বা হোয়াটস অ্যাপে অর্ডার দিলেই বাড়িতে পৌঁছে যাবে তুবড়ি, রঙমশাল কিংবা ফুলঝুরি মতো দেখতে এক বাক্স চকোলেট! দামও মধ্য়বিত্তের নাগালের মধ্যে।

<p>উৎসবের মরশুমে করোনার আতঙ্ক। পুজোর সময়ে রাজ্যের ছোট-বড় কোনও মণ্ডপেই ঢুকতে পারেননি বহিরাগত দর্শনার্থীরা। আদালতের নির্দেশে এবার নজিরবিহীন শারদীয়ার সাক্ষী থাকল বাংলা।<br />
&nbsp;</p>

উৎসবের মরশুমে করোনার আতঙ্ক। পুজোর সময়ে রাজ্যের ছোট-বড় কোনও মণ্ডপেই ঢুকতে পারেননি বহিরাগত দর্শনার্থীরা। আদালতের নির্দেশে এবার নজিরবিহীন শারদীয়ার সাক্ষী থাকল বাংলা।
 

<p>ছবিটা বদলালো না কালীপুজোতেও। আতসবাজির ধোঁয়ায়&nbsp;কষ্ট আরও বাড়তে পারে করোনা রোগীদের। চিকিৎসকদের আশঙ্কাকে মান্য়তা দিয়ে কালীপুজো, জগদ্ধাত্রী পুজো, এমনকী কার্তিক পুজোতেও বাজি নিষিদ্ধ বলে ঘোষণা করেছে কলকাতা হাইকোর্ট।&nbsp;</p>

ছবিটা বদলালো না কালীপুজোতেও। আতসবাজির ধোঁয়ায় কষ্ট আরও বাড়তে পারে করোনা রোগীদের। চিকিৎসকদের আশঙ্কাকে মান্য়তা দিয়ে কালীপুজো, জগদ্ধাত্রী পুজো, এমনকী কার্তিক পুজোতেও বাজি নিষিদ্ধ বলে ঘোষণা করেছে কলকাতা হাইকোর্ট। 

<p>রায়গঞ্জ শহরের কলেজপাড়া এলাকায় থাকেন শেফ শুভদীপ মোদক ও তাঁর স্ত্রী সুদীপ্তা। এবার কালীপুজো শিশুদের 'বাজির স্বাদ' দিতে অভিনব উদ্যোগ নিয়েছেন এই দম্পতি। &nbsp;এখন আর দম ফেলার ফুরসৎ পাচ্ছেন না তাঁরা।<br />
&nbsp;</p>

রায়গঞ্জ শহরের কলেজপাড়া এলাকায় থাকেন শেফ শুভদীপ মোদক ও তাঁর স্ত্রী সুদীপ্তা। এবার কালীপুজো শিশুদের 'বাজির স্বাদ' দিতে অভিনব উদ্যোগ নিয়েছেন এই দম্পতি।  এখন আর দম ফেলার ফুরসৎ পাচ্ছেন না তাঁরা।
 

<p>প্রতি বছর কালীপুজোর সময়ে বাজি পোড়ান প্রায় সকলেই। কিন্তু বাজির স্বাদ মিলবে কী করে? আসলে যে বাজি পোড়ানো হয়, সেই &nbsp;ফুলঝুরি, তুবড়ি, ফুলঝুরির আদলে চকোলেট তৈরি করছেন মোদক দম্পতি।<br />
&nbsp;</p>

প্রতি বছর কালীপুজোর সময়ে বাজি পোড়ান প্রায় সকলেই। কিন্তু বাজির স্বাদ মিলবে কী করে? আসলে যে বাজি পোড়ানো হয়, সেই  ফুলঝুরি, তুবড়ি, ফুলঝুরির আদলে চকোলেট তৈরি করছেন মোদক দম্পতি।
 

<p>পোশাকি নাম 'পটাকা চকোলেট'। যদি এই অভিনব চকোলেটের স্বাদ নিতে চান, তাহলে ফোনে বা হোয়াটস অ্যাপে অর্ডার করতে পারেন আপনি। নির্দিষ্ট সময়ে বাড়িতে পৌঁছে যাবে এক বাক্স রংমশাল, ফুলঝুরি কিংবা বোমা, থুড়ি চকোলেট।<br />
&nbsp;</p>

পোশাকি নাম 'পটাকা চকোলেট'। যদি এই অভিনব চকোলেটের স্বাদ নিতে চান, তাহলে ফোনে বা হোয়াটস অ্যাপে অর্ডার করতে পারেন আপনি। নির্দিষ্ট সময়ে বাড়িতে পৌঁছে যাবে এক বাক্স রংমশাল, ফুলঝুরি কিংবা বোমা, থুড়ি চকোলেট।