করোনার আবহের মধ্য়ে সাতসকালে চাঞ্চল্যকর ঘটনা ঘটে গেল হাওড়ায়। নিজের রাইফেল দিয়ে আত্মঘাতী হলেন প্রাক্তন রাইফেল শ্যুটার অমিত ধর। পরিবারের দাবি, দীর্ঘদিন ধরে অসুস্থ ছিলেন তিনি। ঠিকভাবে হাঁটাচলা করতে পারতেন না। সেকারনে অমিতবাবু মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন বলে দাবি পরিবারের। বৃহস্পতিবার সকালে আচমকা গুলির শব্দ পান পরিজনরা। বছর উনষোত্তরের অমিত ধরকে মাটিতে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখেন বাড়ির লোকেরা।

প্রাক্তন শ্যুটারের মৃত্যু ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে ব্যাঁটরা থানার নটোবর লাল রোডে। ঘটনাস্থলে পুলিশ পৌঁছে অমিত ধরের দেহ উদ্ধার করে পুলিশ। মৃতদেহের পাশ থেকে সুইসাইড নোট উদ্ধার হয়েছে। 

পুলিশ সূত্রে খবর, এদিন সকাল ছটা নাগাদ ভিতরের ঘর থেকে বারান্দায় বেরিয়ে আসেন অমিত ধর। তারপর নিজের লাইসেন্সপ্রাপ্ত রাইফেল দিয়ে মাথায় গুলি করেন। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় তাঁর। তিনি প্রাক্তন জাতীয় শ্যুটার হলেও তাঁদের ব্যবসাও রয়েছে। পরিবারের লোকেরা জানিয়েছেন, তিন বছর আগে তাঁর মাথায় স্ট্রোক হওয়ার কারনে স্বাভাবিকভাবে হাঁটাচলার ক্ষমতা হারিয়ে ফেলেছিলেন তিনি। কয়েক মাস আগে তাঁর শারীরিক অবস্থার আরও অবনতী হয়। ফিজিওথেরাপিস্টের সাহায্য়ে বাড়িতে তিনি নিজেই হাঁটাচলার চেষ্টা করতেন। নিজের স্বাভাবিক চলাফেরার ক্ষমতা না করতে পারায় তিনি মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন বলে জানিয়েছে পরিবার।

ঘটনাস্থল থেকে ব্যবহার করা রাইফেলটি উদ্ধার করেছে পুলিশ। ঘটনায় অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলা রুজু করে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।