দেশের আর্থিক বৃদ্ধির হার নিয়ে চিন্তার ভাজ পড়েছে অর্থনীতিবিদদের কপালে। গত ছয় বছরে সর্বনিম্ন দেশের আর্থিক বৃদ্ধির হার। এই ইস্যুতে বিরোধীরা লাগাতার আক্রমণ চালাচ্ছে মোদী প্রশাসনের বিরুদ্ধে। এই ইস্যুতে এবার প্রধানমন্ত্রীকে তীব্র আক্রমণ করলেই কংগ্রেস নেত্রী প্রিয়ঙ্কা গান্ধী। আগামী ২২ সেপ্টম্বর মার্কিন মুলুকে অনাবাসী ভারতীয়দের সামনে বক্তব্য রাখার কথা নরেন্দ্র মোদীর। যার আনুষ্ঠানিক নাম দেওয়া হয়েছে'হাউদি মোদী'। এবার এই কর্মসূচি নিয়েই ট্যুইটারে মোদীকে বিঁধলেন প্রিয়ঙ্কা। বিদেশে অনুষ্ঠান করে বাড়ানো যাবে না দেশের আর্থিক বৃদ্ধির গতি। লিখলেন কংগ্রেস নেত্রী। 


নিজের ট্যুইটারে প্রিয়ঙ্কা লেখেন, ৫ ট্রিলিয়ন অর্থনীতি নিয়ে বাতেলা অথবা মিডিয়াতে বড় বড় কথা বলেলই দেশের অর্থনীতি এগিয়ে যাবে না। বাইরে অনুষ্ঠান করলেই সবসময় বিনিয়োগ আসবে না। বিনিযোগকারীদের আত্মবিশ্বাস তলানিতে পৌঁচেছে, কিন্তু সত্যিটা স্বীকার করছে না সরকার। ভারতের অর্থনীতির মহাশক্তি হয়ে ওঠার ক্ষেত্রে এই মন্দা স্পিড ব্রেকার হয়ে উঠেছে।

 
আগামী ২২ সেপ্টেম্বর হিউস্টনে ৫০ হাজার প্রবাসী ভারতীয়র সামনে বক্তব্য রাখার কথা মোদীর। যেখানে উপস্থিত থাকতে পারেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পও। 


গত ছয় বছরে অর্থনীতির সর্বনিম্ন বৃদ্ধি নিয়ে আগেই বিজেপি সরকারকে আক্রমণ করেছেন রাহুল গান্ধী। কেন্দ্রের ভ্রান্ত নীতির বিরুদ্ধে  আগামী ১৫ থেকে ২২ অক্টোবর সারা দেশ জুড়ে আন্দোলনে নামতে চলেছে কংগ্রেস শিবির। 


এদিকে কেন্দ্রের পাশাপাশি উত্তরপ্রদেশের বিজেপি সরকারকেও নিশানা করেছেন প্রিয়ঙ্কা। উত্তরপ্রদেশে প্রায় দুলক্ষ শিক্ষকের পদ খালি পড়ে রয়েছে। যুব সমাজ চাকরির জন্য হন্যে হয়ে ঘুড়ছে। কিন্তু এনিয়ে যোগী আদিত্যনাথের সরকার কোনও পদক্ষেপ করছে না বলে ট্যুইটারে আক্রমণ শানিয়েছেন প্রিয়ঙ্কা।