বয়স তার ১ বছর-ও হয়নি। কিন্তু এই বয়সেই সে আজ কোটিপতি। আদতে কেরলের বাসিন্দা হলেও, কাজের সূত্রে তার বাবা-মা থাকেন সংযুক্ত আরব আমিরশাহির রাজধানী দুবাইয়ে। সেখানেই একটি মাসিক লটারিতে এই খুদে এক মিলিয়ন ডলার অর্থাৎ ভারতীয় মুদ্রায় ৭ কোটি টাকারও বেশি জিতেছে।

এই বিশ্বে তোলপাড় ফেলে দেওয়া ভারতীয় শিশুর নাম মহম্মদ সালাহ। তার বাবা রামিজ রহমান গত এক বছর ধরেই তিনি দুবাই ডিউটি ​​ফ্রি আয়োজিত এই লটারিতে অংশ নিচ্ছেন। কিন্তু এর আগে কোনওদিন কিছু জিততে পারেননি। সম্প্রতি তিনি তাঁর ছেলের নামে অনলাইনে ৩২৩ সিরিজের ১৩১৯ নম্বর লটারির টিকিট কিনেছিলেন। মঙ্গলবার এই লটারির টিকিটের বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করা হয়। আর তখনই দেখা যায় মাত্র ১ বছর বয়সেই মহম্মদ সালাহ ১ কোটি টাকার মালিক হয়েছে।

৩১ বছরের রামিজ আবুধাবি-তে একটি বেসরকারী প্রতিষ্ঠানে অ্যাকাউন্টেন্টের কাজ করেন। আগামী ১৩ ফেব্রুয়ারি তার ছেলে মহম্মদ সালাহ এক বছরে পড়বে। তার বাবা রামিজ রহমান জানিয়েছেন, খবরটা পেয়ে তাঁরা সকলেই দারুণ আনন্দ পেয়েছেন। এর জন্য তিনি দুবাই ডিউটি ​​ফ্রিকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন। তিনি জানান, এই টাকাটা তাঁরা ছোট্ট সালাহ-র ভবিষ্যতের জন্য রেখে দেবেন।

সংযুক্ত আরব আমিরশাহিতে অবশ্য অনেক ভারতীয়ই এর আগে লটারির টিকিট কিনে কোটিপতি হয়েছেন। গত বছরই দুবাইয়ে গিয়ে চাকরি না পেয়ে বিপাকে পড়েছিলেন এক ভারতীয় কৃষক। দেশে ফেরার জন্য তাঁকে স্ত্রীর কাছ থেকে টাকা ধার করতে হয়েছিল। সেই টাকা থেকেই দেশে ফেরার আগে তিনি একটি রাফেল লটারির টিকিট কিনেছিলেন। দেশে ফেরার পর তিনি জানতে পেরেছিলেন সেই লটারিতে তিনি ৪ মিলিয়ন ডলারেরও বেশি জিতেছেন। বদলে গিয়েছিল তার জীবন।