ভারতে বাড়তে থাকা পথ দুর্ঘটনায় লাগাম লাগাতেই চলতি বছরে কেন্দ্রীয় সরকার ট্রাফিক আইন সংশোধন করেছে। অনেকটা বাড়ানো হয়েছে ট্রাফিক আইন ভঙ্গে জরিমানার পরিমান। তারপর থেকে বিভিন্ন রাজ্যে চড়া হারে জরিমানার দেওয়ার খবর আসছিল। কিন্তু, তাতেও সাধারণ মানুষের মধ্যে কোনও সচেতনতা গড়ে ওঠেনি। তার প্রমাণ পাওয়া গেল সোমবার সকালের আরও এক দুর্ঘটনায়।

এদিন সকালে রাজস্থানের বিকানের জেলার দুঙ্গারগড়ে, ন্য়াশনাল হাইওয়ে ১১-এ উপর একটি ট্রাক ও একটি যাত্রীবাহী বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়েছে। এতে এখনও পর্যন্ত ১০ জন নিহত ২৫ জন আহত হয়েছেন বলে জানা গিয়েছে। দুর্ঘটনার পরই স্থানীয় বাসিন্দারা পুলিশে খবর দেন। ঘটনাস্থলে পৌঁছায় দমকল কর্মীরাও। তার আগে থেকেই অবশ্য স্থানীয়দের উদ্যোগে আহত ও নিহতদের স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার কাজ শুরু হয়ে গিয়েছিল।
 
সংঘর্ষের অভিঘাত এতটাই মারাত্মক ছিল যে বাসের একটি পাশ পুরোপুরি দুমড়ে মুচড়ে গিয়েছে। ধাক্কা লাগার পর বাসটি নিয়ন্ত্রন হারিয়ে উল্টে যায়। সংঘর্ষের পর ট্রাক ও বাসটিতে আগুনও ধরে যায়। ফলে বেশ কিছু যাত্রী বাসটিতে আটকে পড়েন। তাদের উদ্ধার করতে সমস্যা দেখা দেয়। যাত্রীদের বেশিরভাগই আগুনে পুড়েই আহত হয়েছেন। ট্রাক চালকও দগ্ধ হয়েই মারা যান।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন দুটি গাড়িই প্রচণ্ড গতিতে আসছিল। মাঝে আরও একটি গাড়িকে পাশ কাটাতে গিয়ে দুটি ভারি গাড়ি একেবারে মুখোমুখি এসে যায়। সজোরে ধাক্কা মারে একে অপরকে। দুটি গাড়িরই সমান দোষ ছিল বলে মনে করা হচ্ছে। আহতদের মধ্যে বেশ কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। তাই মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।