এদেশে আসা ইতালির ১৫ জন পর্যটকের শরীরে করোনা ভাইরাস ধরা পড়েছে। এমনটাই জানিয়েছে এইএমএস।  আক্রান্তদের আইটিবিপর বিশেষ ক্যাম্পে রাখা হয়েছে। এর ফলে ভারতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে  ২১। এদিকে এখনও পর্যন্ত ৬ ভারতীয়র দেহে মিলেছে এই মারণ ভাইরাস। এই পরিস্থিতিতে  করোনা আতঙ্কে কাঁপছে গোটা দেশ। চিন্তায় দেশবাসী। মারণ এই ভাইরাস বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়েছে ৯০ হাজারেরও বেশি মানুষের দেহে। মৃতের সংখ্যা পৌঁছে গেছে তিন হাজারের কাছাকাছি। এই পরিস্থিতিতে তিন ছাড়াও ইতালি, ইরান, দক্ষিণ কোরিয়া ও জাপান থেকে ভারতে আসার জন্য অনুমোদিত ভিসাগুলি বাতিল করল কেন্দ্রীয় সরকার। সারা পৃথিবী জুড়ে করোনা দৌরাত্ম্যের কথা মাথায় রেখেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলেই জানিয়েছে ভারত সরকার। 

কেন্দ্রীয় নির্দেশিকায় জানান হয়েছে, ইতালি, ইরাণ, দক্ষিণ কোরিয়া, জাপানের নাগরিকদের যে ভিসা দেওয়া হয়েছিল তা ৩ মার্চ বাতিল করা হয়েছে। যারা একমাত্র বাধ্য হয়ে ভারতে আসবেন তাঁদের নতুন করে ভিসার আবেদন করতে হবে।

আরও পড়ুন: সঙ্কটে মধ্যপ্রদেশে কংগ্রেস সরকার, টাকার বিনিময়ে বিধায়ক কেনার অভিযোগল বিজেপির দিকে

চিনের যেসব নাগরকিদের ভিসা গত ৫ ফেব্রুয়ারি বাতিল করা হয় তা বলবৎ থাকবে। জরুরী কারণে তাঁদের ভারতে আসতে হলে ভারতীয় দূতাবাসে ফের আবেদন করতে হবে। 

আরও পড়ুন: দেশে বাড়ছে করোনা আক্রান্ত, কী করবেন আর কী করবেন না জানাতে দেখে নিন সরকারের নির্দেশিকা

আরও জানানো হয়েছে,  ১ ফেব্রুয়ারি চিন, ইরান, ইতালি, দক্ষিণ কোরিয়া, জাপানের যেসব নাগরিক ভারতে আসার জন্য ভিসা পেয়েছিলেন এবং এখনও ভারতে আসেননি তাদের ভিসা বাতিল করেছে কেন্দ্র। তবে ওইসব দেশের কূটনীতিক, রাষ্ট্রসংঘের আধিকারিক, ওআইসি কার্ডধারী এবং বিমানকর্মীদের ক্ষেত্রে ওই নির্দেশিকা কার্যকর হবে না। তবে সকলেই মেডিক্যাল স্ক্রিনিং করতে হবে।  ভারতের যে কোনও বিমানবন্দর দিয়ে এদেশে প্রবেশকারী বিদেশিদের স্বাস্থ্য ও সফর ইতিহাস সম্পর্কে সেলফ ডিক্লিয়ারেশন দিতে হবে। পাশাপাশি ভারতীয়দের চিন, ইরান, দক্ষিণ কোরিয়া, ইতালিতে যেতে নিষেধ করা হয়েছে। পাশাপাশি প্যাপাসিট্যামলসহ ২৬ ধরনের ওষুধ রফতানির ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে ভারত সরকার।