বিজয়া দশমীতে শস্ত্রপূজোর নামে গোয়ালিয়রের একটি স্কুলের মধ্যেই দেদার গুলি ছোড়ার অভিযোগ উঠল বিশ্ব হিন্দু পরিষদ ও বজরং দলের বিরুদ্ধে। এই অভিযোগেই এই দুই হিন্দুত্ববাদী সংগঠনের প্রায় ১৫০ জন সদস্যের বিরুদ্ধে মামলা রুজু করেছে মধ্যবপ্রদেশ পুলিশ।

ঘটনাটির সূত্রপাত ঘটে গত মঙ্গলবার দশেরার দিন। প্রতি বছরই ঐতিহ্য মেনে দশেরার দিন হিন্দুত্ববাদী সংগঠনগুলি শস্ত্রপুজো অর্থাৎ অস্ত্রশস্ত্রের পুজো করে থাকে। এই বছর মধ্যপ্রদেশের গোয়ালিয়রে বিশ্ব হিন্দু পরিষদ ও বজরং দলের সদস্যরা একটি বিশেষ মিছিলের আয়োজন করেছিলেন, যা শেষ হয় স্থানীয় একটি স্কুলে। এরপরই শস্ত্র পুজোর নামে স্কুলের মধ্যেই গুলি ছোড়ে ওই দুই সংগঠনের সদস্যরা বলে অভিযোগ।

ঘটনাস্থলে উপস্থিত ছিলেন পুলিশ কর্মীরা। পুলিশের দাবি তাঁরা প্রথমেই স্কুলের মধ্যে গুলি ছোড়া নিয়ে মিছিলে অংশগ্রহণকারীদের সতর্ক করেছিলেন। এরপর গুলি ছোড়া শুরু হতে পুলিশের পক্ষ থেকে ফের একবার নিষেধ করা হয়। কিন্তু ভিএইচপি ও বজরং সদস্যরা সেই বারণ শোনেননি।

এই ঘটনার ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট হতেই তা ভাইরাল হয়। স্কুলের মতো প্রতিষ্ঠানের ভিতরে গুলি চালানো নিয়ে প্রবল সমালোচনা হয়েছে। এরপরই ওই ঘটনায় জড়িত প্রায় ১৫০ জনের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করা হয়।