নোট বাতিল হয়েছে তিন বছর পার হল। কিন্তু এখনও ভারতীয়দের ঘর থেকে বের হচ্ছে বাতিল হওয়া পাঁচশ ও এক হাজার টাকার নোট। এই নোটগুলি সরকারিভাবে আর চলে না। হাটে বাজারে কেউ নেয় না। কিন্তু, কিছু লোক এখনও গোপনে মন্দিরে, গুরুদ্বারে বা অন্যান্য় ধর্মস্থলের অনুদান বাক্সে পুরোনো এই নোট রেখে চলেছেন। সম্প্রতি মহারাষ্ট্রের আহমেদনগরের শিরডি সাঁইবাবা মন্দিরে এমনই এক ঘটনা সামনে এসেছে।

গত রবিবার, মন্দিরের অনুদান বাক্স খুলে সারা মাসের অনুদানের গণনা করতে যান মন্দির কমিটির সদস্যরা। আর তা করতে গিয়েই চোখ কপালে ওঠে তাঁদের। বাক্সে ভর্তি পুরোনো পাঁচশ ও হাজার টাকার নোট। মন্দির কমিটির সদস্যরা জানিয়েছেন গুনে দেখা গিয়েছে মন্দিরের অনুদানের বাক্সে মোট ১৩ হাজার টাকার বাতিল হওয়া নোট রয়েছে।

বর্তমানে মন্দির কমিটির সদস্যরা পুরোনো নোটগুলি তাদের নিজেদের কাছেই রেখে দিয়েছেন। সাঁইবাবা মন্দির কমিটির সদস্য নলিন আচার্য্য বলেছেন প্রতি মাসেই মন্দিরের অনুদান বাক্সটি খোলা হয়। তাতে জমা পড়া অর্থ গণনা করা হয়। আর তাতে একটা বড় অংশই মেলে পুরোনো নোট। নোট বাতিলের সময় সাঁইবাবা মন্দিরের অনুদান বাক্স থেকে প্রায় ৭০-৮০ লক্ষ টাকার পুরোনো নোট বের হয়েছিল। তার পর থেকে প্রায় পাঁচ-ছয় লক্ষ টাকার পুরোনো নোট মন্দিরের অনুদান বাক্সে জমা পড়েছে।
 
তবে এই ঘটনা কোনও ব্যতিক্রম নয়, ভারতের বহু ছোট-বড় মন্দির, গুরুদ্বার, মসজিদের অনুদান বাক্সে পুরানো নোট মেলে।