বরফের নীচে চাপা পড়ে প্রাণ গেল চার সেনা জওয়ানের। সিয়াচেনের তুষারঝড়ে জওয়ানদের সঙ্গে মারা গেছে দুলি  কুলি। আটজনের মধ্য়ে বাকিদের হেলিকপ্টারে করে হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়েছে।

সোমবার দুপুর তিনটের সময় সিয়াচেনে তুষার ঝড়ের মুখে পড়ে ভারতীয় সেনা। মাত্র  কিছুক্ষণের মধ্যেই বরফে চাপা পড়ে যায় আট জনের একটি সেনার টহলদারী দল। খবর পেয়েই তড়িঘড়ি উদ্ধারকাজে নামে ভারতীয় সেনা। হেলিকপ্টারে শুরু হয় তল্লাশি। পাথরের তলা থেকে উদ্ধার করা হয় আক্রান্তদের। চিকিৎসকরা  জানিয়েছেন অতির্কিত হাইপোথারমিয়াতেই মৃত্যু হয়েছে ওই জওয়ানদের। 

সংবাদ সংস্থাকে সেনার এক অফিসার জানিয়েছেন, সমুদ্র পৃষ্ঠ থেকে ১৯ হাজার ফুট ওপরে টহল দিচ্ছিল ভারতীয় সেনার ওই জওয়ানরা। হঠাৎই তুষারঝড়ের মুখে পড়েন তাঁরা। সিয়াচেনের আবহাওয়া বলছে, সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে ২০ হাজার ফুট ওপরে কারাকোলাম পর্বতমালার ওপর পাহাড়া দিতে হয় ভারতীয় সেনাকে। উচ্চতার বিচারে যা সারা বিশ্বে সবার ওপরে। এখানে স্বাভাবিক তাপমাত্রা মাইনাস ৬০ ডিগ্রি। এর আগেও বহুবার তুষারঝড়ে সিয়াচেনে প্রাণ গিয়েছে ভারতীয় জওয়ানদের। শেষবার ১০ জনের একটি সেনা দল তুষারঝড়ের নীচে চাপা পড়ে যায়। পরে বরফ সরিয়ে  উদ্ধার  করা  হয় ল্যান্স  নায়েক হনুমানথাপ্পাকে। যদিও উদ্ধারের তিন দিনের মাথায় হাসপাতালে প্রাণ যায় তাঁর।