মা অসুস্থ। বিছানা থেকে উঠতে পারেন, হাসপাতালে ভর্তি। সেই অসুস্থ মায়ের মুখে খাবার তুলে দিতে হাসপাতালের দরজায় দরজায় ঘুরে ভিক্ষা করছে একরত্তি মেয়ে ভাগ্যশ্রী। কিন্তু, নাম পেলেও মেয়ের ভাগ্য খোলেনি। যে বয়সে হেসে-খেলে দৌড়ে বেড়ানোর কথা সেই বয়সে নাকি ভিক্ষা করছে একরত্তি শিশু!

ঘটনাটি কর্নাটকের। হাসপাতালে ঘুরে ঘুরে সকলের কাছ থেকে টাকা চাইতে দেখে বিষয়টি চোখে পড়ে যায় সংবাদ সংস্থার কর্মীদের। প্রশ্ন করায়, ভাগ্যশ্রী তাঁদের জানায়, মদ্যপানে আসক্ত তার মা, দুর্গাম্মা। সেই কারণেই গত এক সপ্তাহ ধরে হাসপাতালে ভর্তি। মায়ের এই আসক্তির জন্য বাবাও ছেড়ে চলে গিয়েছে তাঁদের। বিয়ে করে আলাদা সংসার পেতেছেন নিজের মতো। সেই থেকে মা ছাড়া আর কেউ নেই ছোট্ট ভাগ্যশ্রীর। অসুস্থ মা-কে খাইয়ে দেওয়া থেকে শুরু করে, তার জামা-কাপড়ের পরিষ্কার করে দেওয়া সবই একা হাতে সামলায় ছোট্ট ভাগ্যশ্রী। এখন যে-কোনও উপায়ে মা'কে সুস্থ করে তোলাই লক্ষ্য ছ'বছরের ভাগ্যশ্রী।

এরপরই বিষয়টি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে জানেনো হলে, সেখান থেকে খবরটা পৌঁছয় মুখ্যমন্ত্রীর সচিবালয়ে। সচিবালয়ের নির্দেশে, রাজ্যের মহিলা ও শিশু কল্যাণ দফতরের তরফে দুর্গাম্মাকে চিকিৎসা করে সম্পুর্ণ সুস্থভাবে বাড়ি পৌঁছে দেওয়ার ব্যবস্থা করার এবং বিনা পয়সায় ভাগ্যশ্রীর শিক্ষার ব্যবস্থা করারও নির্দেশ দেওয়া হয়।