করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ফের দেশের বাণিজ্য রাজধানী মুম্বইতে মৃত্যু হল এক ব্যক্তির। ৬৮ বছরের ওই ব্যক্তি ফিলিপিন্সের নাগরিক বলে জানা গেছে। এদেশে আসার পর তাঁর শরীরে কোভিড-১৯ অস্তিত্ব ধরা পড়ে। যদিও পরে তিনি চিকিৎসায় পুরোপুরি সুস্থ হয়ে ওঠেন। তবে সোমবার ওই বিবেদি নাগরিকের মৃত্যুর কথা জানিয়েছে বৃহন্মুম্বাই পুরসভা।

মুম্বইতে এর আগেই করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ২ ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। ওই দুই কোভিড-১৯ আক্রান্ত ব্যক্তির বয়সও ছিল ষাটের উর্দ্ধে। 

করোনা টেস্টে পজিটিভ আসার পর মুম্বইয়ের কস্তুরবা হাসপাতালে  ওই ফিলিপিন্সের নাগরিকের চিকিৎসা চলছিল। তবে সুস্থ হওয়ার পর তাঁকে মুম্বইয়ের এক বেসরকারি হাসপাতালে স্থানাস্তর করা হয়। সেখানেই রবিবার রাতে ওই ব্যক্তির মৃত্যু হয়। 

লকডাউন নিয়ে রাজ্যগুলিকে কড়া নির্দেশ , 'নিজেকে বাঁচান', ট্যুইট করলেন প্রধানমন্ত্রী

গত ২৪ ঘণ্টায় মার্কিন মুলুকে করোনা প্রাণ কাড়ল শতাধিক, সব ভুলে কিমের প্রশংসায় ব্যস্ত ট্রাম্প

আজ থেকে লকডাউনে কলকাতা, করোনা মোকাবিলায় যথেষ্ট নয়, বলছে 'হু'

মৃত ব্যক্তির ডায়াবেটিস এবং হাঁপানির সমস্যা ছিল বলে বৃহন্মুম্বাই পুরসভা সূত্রে জানা গেছে। গত ১৩ তারিখ তাঁকে কস্তুরবা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। 

গত সপ্তাহেই করোনা ভাইরাস সংক্রমণ থেকে সুস্থ হয়ে ওঠা এক ইতালিয় পর্যটকের মৃত্যু হয় জয়পুরে। ৬৯ বছরের ওই ইতালিয় পর্যটক ও তাঁর স্ত্রী ভারতে ঘুরতে এসেছিলেন। শরীরে কোভিড-১৯ ভাইরাসের অস্তিত্ব মেলার পর তাঁদের জয়পুরের সোয়াই মানসিং হাসপাতালে চিকিৎসা চলছিল। সেখানে ওই ব্যক্তি ও তাঁর স্ত্রী সুস্থ হয়ে ওঠেন বলে জানান চিকিৎসকরা। যদিও শহরের এক বেসরকারি হাসপাতালে স্থানাস্তর করার পর ওই ব্যক্তির মৃত্যু ঘটে। হৃদরোগে আক্রান্ত হয়েই তিনি মারা যান বলে হাসপাতাল সূত্রে জানান হয়। এদেশে বর্তমানে ৪১ জন করোনা আক্রান্ত বিদেষি নাগরিকের  চিকিৎসা চলছে বিভিন্ন হাসপাতালে।