Asianet News BanglaAsianet News Bangla

নরেন্দ্র মোদীর নতুন চমক ৭৫ টাকার কয়েন, রাষ্ট্র সংঘের এফএওর পাশে থাকার বার্তা

  • রাষ্ট্র সংঘের খাবার আর কৃষি সংস্থার ৭৫তম বার্ষিকি 
  • সংস্থাটির সঙ্গে ভারতের সম্পর্ক দৃঢ়
  • তাই বার্ষিকি উদযাপনে নতুন পদক্ষেপ
  • ৭৫ টাকার কয়েন প্রকাশ 
     
75th year of fao pm narendra modi release rs 75 coin bsm
Author
Kolkata, First Published Oct 16, 2020, 5:22 PM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবার নতুন চমক দিলেন। নোটবন্দির পর যেমন ২ হাজার টাকার নোট চালু করেছিলেন এবার তিনি প্রকাশ করলেন ৭৫ টাকার কয়েন। রাষ্ট্র সংঘের খাদ্য ও কষি সংস্থার ৭৫ তম বার্ষিকীতেই এই অভিনব উদ্যোগ নিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। ভার্চুয়াল মাধ্যমে একটি অনুষ্ঠানের মধ্যে দিয়েই ৭৫ টাকার কয়েন জনসমক্ষে নিয়ে আসা হয়। আর এই ৭৫ টাকার কয়েনের আনুষ্ঠানিক সূচনা করে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেন রাষ্ট্র সংঘরে খাদ্য ও কৃষি সংস্থার সঙ্গে ভারতের যোগাযোগ খুবই দৃঢ়।

75th year of fao pm narendra modi release rs 75 coin bsm

একই সঙ্গে এদিন প্রধানমন্ত্রী ১৭টি বায়োফোরাইফাইড ফসলের নাম ঘোষণা করেছেন, যেগুলি নূন্যতম সমর্থন মূল্যদিয়ে কেন্দ্রীয় সরকার সংগ্রহ করবে বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল। তবে এই পদক্ষেপ এমন সময় গ্রহণ করা হয়েছে, যখন সদ্যো পাস হওয়ার কৃষি আইনের বিরোধীতার করে পথে নেমেছেন বহু কৃষক। বেশ কয়েকটি রাজ্যেও কৃষি আইনের বিরোধিতার করেছে। তবে প্রধানমন্ত্রী এদিন স্পষ্ট করে জানিয়েছেন, নূন্যতম সংর্থন মূল্য আর সরকারি সংগ্রহ গোটা দেশেই খাদ্য সুরক্ষার একটি গুরুত্বপূর্ণ অ। আগামী দিনে এই কর্মসূচি আরও বাড়িয়ে তোলার বিষয়েও আশা প্রকাশ করেছেন তিনি। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী আরও বলেন যে অপুষ্ঠি দূর করতে গোটা দেশেই চালু করা হয়েছে বেশ কয়েকটি প্রকল্প। 

সিন্ডিকেটরাজ থেকে পুলিশ ইস্যু, সোশ্যাল মিডিয়ায় বার্তা দিয়ে মুখ্যমন্ত্রীকে নিশানা রাজ্যপালের ...

ভারতের সঙ্গে তুলনা করে পাকিস্তানকে সার্টিফিকেট রাহুল গান্ধীর, আবারও বিজেপিকে নিশান

এই অনুষ্ঠানের আগেই প্রধানমন্ত্রীর দফতর থেকে একটি বিবৃতি জারি করে রাষ্ট্র সংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থার সঙ্গে ভারতের যোগাযোগের কথা বলে। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় জানিয়েছ ভারতের সঙ্গে এএফও-র সম্পর্ক ঐতিহাসিক। ভারেতর আইএএস বিয়ন রঞ্জন ১৯৫৬-৬৭ সাল পর্যন্ত এএফও-র মহাপরিচালক ছিলেন। ২০২০ সালে নোবেল পুরষ্কার প্রাপ্ত বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচিটি তাঁর আমলেই গ্রহণ করা হয়েছিল। পিএমও-র বিবৃতিতে বলা হয়েছে ২০১৬ সাল যেমন আন্তর্জাতিক ডাল দিবস হয়ে চিহ্নিত হয়েছিল তেমনই ২০২০ সাল আন্তর্জাতিক মিলেট দিবস হিসেবে চিহ্নিত হয়ে থাকবেকবে। এদিন প্রধানমন্ত্রী বলেন ভারতের মূল্য লক্ষ্যই অপুষ্টির হার কমাতে আর সেই দিকেই রীতিমত জোর দেওয়া হচ্ছে। পাসাপাশি কৃষি ক্ষেত্রের সঙ্গেই অপুষ্টি  যুক্ত বলেও দাবি করেছে তিনি।  

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios