বৃহস্পতিবার নীতি আয়োগের সিইও অমিতাভ কান্ত জানিয়েছেন, মুম্বই, দিল্লি, আহমেদাবাদ-সহ ভারতের মোট আটটি শহরের হাতেই রয়েছে করোনভাইরাস মহামারির বিরুদ্ধে লড়াইয়ের মূল চাবিকাঠি। কারণ ভারতের বেশিরভাগ কোভিড-১৯ আক্রান্তের সন্ধান মিলেছে এই আট শহরগুলি থেকেই। কোন আটটি শহরের কথা বললেন নীতি আয়োগের প্রধান কার্যনির্বাহী আধিকারিক?

বৃহস্পতিবার, অমিতাভ কান্ত একটি টুইট বার্তায় বলেছেন,  যে শহরগুলির হাতে কোভিড-১৯'-এর বিরুদ্ধে ভারতের লড়াইয়ের মূল চাবিকাঠি রয়েছে, সেগুলি হল - মুম্বই, দিল্লি, আহমেদাবাদ, পুনে, চেন্নাই, ইন্দোর, থানে এবং জয়পুর। তিনি জানিয়েছেন ভারতের মোট আক্রান্তের ২০ শতাংশই মুম্বই-এর বাসিন্দা। এরপরেই আছে দিল্লি ১১ শতাংশ, আহমেদাবাদ প্রায় ৯ শতাংশ। অর্থাৎ এই তিন শহরেই ভারতের প্রায় ৪০ শতাংশ কোভিড রোগী আছেন। এছাড়া পুনেতে প্রায় ৪ শতাংশ, চেন্নাই-এ ৪ শতাংশ, ইন্দোরে প্রায় ৩ শতাংশ, থানে-তে  ৩ শতাংশ এবং জয়পুর ভারতের প্রায় ২.৫ শতাংশ কোভিড রোগী রয়েছেন। অর্থাৎ এই আট শহরে পরীক্ষা, যোগাযোগ-সন্ধান, এবং সম্প্রদায়গত কড়া নজরদারির মাধ্যমে যদি করোনাভাইরাস যুদ্ধ জেতা যায়, তাহলেই কোভিড যুদ্ধটা অর্ধেকেরও বেশি  জিতে যাবে ভারত।

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় জানিয়েছে, দেশে কোভিড-১৯ জনিত কারণে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৭৮৩ এবং আক্রান্তের সংখ্যা পৌঁছেছে ৫২,৯৫২-এ। গত ২৪ ঘন্টার মধ্যে ৮৯ জনের মৃত্যু হয়েছে এবং ৩,৫৬১ টি নতুন মামলার সন্ধান পাওয়া গিয়েছে।