ভুল করেই নিয়ন্ত্রণরেখা পেরিয়ে এক ৩২ বছর বয়সী পাক অধিকৃত কাশ্মীরের বাসিন্দা ঢুকে পড়েছিলেন ভারতীয় এলাকায়। তবে তিনি ভুল করেই ঢুকে পড়েছিলেন এটা নিশ্চিত হওয়ার পরই ভারতীয় সেনা পাক কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করেছিলেন তাঁকে দেশে ফেরানোর জন্য। বুধবার অবশেষে তাঁকে পাক কর্তৃপক্ষের হাতে তুলে দিল ভারতীয় সেনা।  

৩২ বছরের শাবির আহমেদ ভারতের জম্মু ও কাশ্মীরের তাংধর সেক্টরে অনু্রবেশ করেছিলেন চলতি বছরের ১৭ মে। স্থানীয় বাসিন্দাদের কাছ থেকে খবর পেয়ে তাদের সহায়তাতেই তাকে গ্রেফতার করেছিল ভারতীয় সেনাবাহিনী। তারপর চলে জিজ্ঞাসাবাদ। সেনা নিশ্চিত হয়, গুপ্তচরবৃত্তি বা কোনও খারাপ মতলবে সে আসেনি। তারপরই তার প্রত্যাবাসনের জন্য ভারতীয় সেনাবাহিনী যোগাযোগ করেছিল পিওকে কর্তৃপক্ষের কাছে।

ভারতীয় সেনার পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, শাবির আহমেদকে মানবতাবাদী কারণে পাক অধিকৃত কাশ্মীরে ফিরিয়ে দেওয়া হয়েছে। জম্মু-কাশ্মীরের তাংধর সেক্টর ও পাক অধিকৃত কাশ্মীরের চিলেহানা-র মাঝে তিথওয়াল ক্রসিং পয়েন্টে তাংধরের সাবডিবিশনাল ম্যাজিস্ট্রেট শাবিরকে পাকিস্তানি কর্তৃপক্ষের হাতে তুলে দেন।

পাক কর্তৃপক্ষ ভারতের এই মানবিক কাজের প্রশংসা করেছে বলে জানিয়েছে সেনা। ভারতীয় সেনার পক্ষ থেকে পাক বাহিনীর প্রতিনিধিদের হাতে মিস্টির বাক্স ও শুভেচ্ছাপত্রও দেওয়া হয়।

অথচ, একমাস আগে এই তাংধর সেক্টরেই যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘন করে টানা কয়েকদিন একের পর এক গোলা ছুড়েছিল পাকিস্তান। তাতে অসামরিক নাগরিক-সহ ভারতূয় সেনার বেশ কয়েকজন জওয়ান নিহত হন। ভারতও অবশ্য পাল্টা আক্রমণে সীমান্তের ওইপাড়ে থাকা নীলম উপত্যকার সন্ত্রাসবাদি শিবিরগুলি গুঁড়িয়ে দিয়েছিল।