প্রতারক যে কত রকমের হয়, তা বোঝা সত্যিই খুব কঠিন। তবে এবার অফিসের বস-কে প্রতারণা করার অভিযোগ উঠল দিল্লির এক যুবকের বিরুদ্ধে। জানা গিয়েছে দিল্লির ওই যুবক তাঁর কোম্পানির বস-কে প্রতারণা করে ১০ লক্ষ টাকা হাতিয়েছে বলে অভিযোগ। 

অভিযুক্ত গগনদ্বীপ নামে ওই যুবকের কাছ থেকে দিল্লি পুলিশ উদ্ধার করেছে একটি ব্যাগ, যাতে রয়েছে ১০ লক্ষ টাকা। জানা গিয়েছে অভিযুক্ত গগনদ্বীপকে ওই টাকা সমেত ব্যগটি দিয়েছিলেন  তাঁরই অফিসের মালিক। গগন তাঁর অধীনেই কর্মরত বলে জানা গিয়েছে। তাঁকে দেওয়া ওই বিপুল পরিমাণ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার জন্য় একটা অদ্ভুত গল্প ফাঁদেন। তিনি নাটকীয়ভাবে ওই টাকা চুরি যাওয়ার গল্প ফাঁদেন। তাঁর মালিককে তিনি জানান যে, বাইক বাহিনী তাঁর কাছ থেকে ওই টাকার ব্যাগ লুঠ করে নিয়ে চম্পট দেয়। 

হিমাচল প্রদেশে বাড়ি ভেঙে মৃত ৭, ধ্বংসস্তূপে আটকে অন্তত ৩০ জন সেনা জওয়ান

এরপর মালিকপক্ষের তরফে পুলিশে অভিযোগ দায়ের করা হয়।  অভিযোগের ভিত্তিতে গগনদ্বীপকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডেকে পাঠানো হয়। প্রথমে সে তাঁর বয়ানে পুলিশকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করলেও পরে জেরার মুখে অপরাধ কবুল করে গগনদ্বীপ। এবং জানায় স্বতঃপ্রণোদিতভাবেই সে এই ঘটনা ঘটিয়েছে। পরে জানা যায় যে পরিস্থিতির চাপে পড়েই এমন কাণ্ড ঘটিয়েছেন গগনদ্বীপ। পুলিশি জেরায় সে জানিয়েছে, চলতি মাসের ২০ জুলাই তাঁর বিয়ের দিন পাকা হয়। বাড়িতে রয়েছেন তাঁর অসুস্থ বাবা। এই পরিস্থিতিতে টাকার প্রয়োজন ছিল তাঁর কিন্তু। আর তাই বস-এর টাকার প্রতি লোভ সামলাতে না পেরেই সে এমন কাণ্ড ঘটিয়েছে বলে জানা গিয়েছে। তবে সে একা নয় এই ঘটনায় তাকে সঙ্গ দেয় তারই এ ক বন্ধু। এরপর গগনকে গ্রেফতার করে দিল্লি পুলিশ।