রাতের কলকাতায় চলন্ত ক্যাবে ধর্ষণের ঘটনা নিয়ে চাঞ্চল্য়ের মধ্যেই দেখা গেল অ্যাপ ক্যাবের আরও এক দিক। হাসপাতালে যাওয়ার পথে অ্য়াপ ক্যাবেই প্রসব করলেন এক মহিলা। বৃহস্পতিবার ভোর রাতে আরজিকর হাসপাতালে আসার পথে নিউটাউনে এই ঘটনা ঘটে।

জানা গিয়েছে, অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার পর থেকে আরজিকর হাসপাতালের তত্ত্বাবধানে ছিলেন উত্তর চব্বিশ পরগণার রায়গাছির সোনি বেগম। গত বুধবারই প্রসবের জন্য তাঁর হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু কিছু পারিবারিক কারণে দিন দুয়েক দেরি হয়ে যায়। এরপর বৃহস্পতিবার রাতে তাঁর প্রসব যন্ত্রণা ওঠে। রাত দেড়টা নাগাদ পরিবারের লোকজন তাঁকে নিয়ে একটি অ্যাপ নির্ভর ক্যাব বা ট্যাক্সিতে করে আরজি কর-এ নিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন।

সোনি বেগমের পরিবারের লোকজন জানিয়েছেন, ট্যাক্সিতে সোনি বেগমের সঙ্গে ছিলেন পরিবারের দুই সদস্য। নিউটাউনের রাস্তায় ওঠার পরই যন্ত্রণা আরও বেড়ে য়ায় সোনি বেগমের। চিনার পার্ক পার হওয়ার যন্ত্রনার অভিঘাতে সোনি প্রায় সংজ্ঞাহীন হয়ে পড়েন। প্রসব প্রক্রিয়া শুরু হয়ে যায়।

এরপর গাড়ির মধ্যেই স্বাভাবিক প্রক্রিয়ায় এক সন্তানের জন্ম দেন তিনি। কোনও জটিলতা সৃষ্টি হয়নি। ভাগ্যক্রমে সেইসময়ই ট্যাক্সিটি চিনার পার্ক সংলগ্ন এলাকার এক বেসরকারি হাসপাতালের সামনে ছিল। সোনি বেগমের অবস্থা দেখে হাসপাতালের নিরাপত্তারক্ষীরা চিকিৎসকদের খবর দেন। এরপরই ওই হাসপাতালের তরফ থেকে সদ্যজাত শিশু-সহ সোনিকে হাসপাতালের ভিতরে নিয়ে গিয়ে চিকিৎসা দেওয়া শুরু হয়।

রাতটা ওই হাসপাতালেই কাটলেও ভাগ্যের সকাল হতেই তাঁদের আরজিকর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। জানা গিয়েছে মা ও শিশু দুজনেই সুস্থ রয়েছে। শিশুটির ওজন হয়েছে সাড়ে তিন কেজির মতো।