সংশোধনাগারে বন্দিদের জন্য খুলে গেল এক নতুন দিশা। সংশোধনাগারে থেকে নিজেদের চেষ্টায় উপার্জন করার এক অভিনব উপায় খুঁজে পেয়েছেন কয়েদিরা। নিজেরা রান্না করে সেই খাবার অনলাইনে বিক্রি করে উপার্জনের এক নতুন উপায় খুঁজে পেয়েছেন কেরলের ভিউর সেন্ট্রাল জেলের বন্দিরা। 

তবে শুধু বিরিয়ানিই নয়, তারা আয়োজন করেছেন কম্বো অফারের। ৩০০ গ্রাম চালের বিরিয়ানির পাশাপাশিসেই কম্বোতে রয়েছে রোস্টেড চিকেন (১টি), তিনটি চাপাটি, একটি কাপকেক, সঙ্গে সালাদ, আচার এবং একটি এক লিটার জলের বোতল। আর সবথেকে অবাক করা ব্যপার হল এই সব পাওয়া যাবে মাত্র ১২৭ টাকায়। একটি জনপ্রিয় খাবার সরবরাহকারী অ্যাপের সঙ্গে একজোট হয়ে অনলাইনে খআবার বিক্রি করার পরিকল্পনা করা হয়েছে সংশোধনাগার কর্তৃপক্ষের তরফ থেকে। সংশোধনাগার থেকে ছয় কিলোমিটার দূরত্বের মধ্যে ডেলিভারি করা হবে এই খাবার। সংশোধনাগার কর্তৃপক্ষ সূত্রে খবর, অসাধারণ স্বাদ এবং দামও হাতের নাগালে হওয়ায় এই খাবার মানুষের পছন্দ হচ্ছে। 

২৫ লক্ষ লিটার জল নিয়ে চেন্নাইয়ের খরা কবলিত অঞ্চলে রওনা দিল বিশেষ ট্রেন

প্রসঙ্গত কেরলে এই ব্যবসা চালু হয়েছে ২০১১ সালে। সেই বছরে 'ফ্রিডম ফুড ফ্যাক্টরি' নামে একটি সংস্থা প্রতিষ্ঠা করা হয় যারা সংশোধনাগারে বন্দি কয়েদিদের তৈরি করা খাবার বিক্রির দায়িত্বে রয়েছে। এখনও পর্যন্ত তাঁরা বন্দিদের তৈরি একাধিক সুস্বাদু বিরিয়ানি তৈরি করে বিক্রি করেছে। তবে এই প্রথমবার তাঁরা অনলাইনে সেই খাবার বিক্রির সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। কর্তৃপক্ষের ধারণা অনলাইন চেনে যোগ দেওয়ার ফলে বিষয়টি আরও বেশি করে প্রচার হবে এবং বিক্রির পরিমাণও আরও বাড়বে।