ক্রমে সঙ্গিন হচ্ছে দিল্লির অবস্থা। বিপদসীমার একেবারে কিনারায় পৌঁছে গিয়েছে বায়ুর গুণমান সূচক। সরকারের পরবর্তী পদক্ষেপ নিয়ে এদিন দিল্লিতে একটি উচ্চ পর্যায়ের বৈঠক ডাকা হয়েছিল। সেখানে বিজেপি সাংসদ তথা প্রাক্তন ক্রিকেটার গৌতম গম্ভীর-সহ বেশ কয়েকজন অনুপস্থিত থাকায় এদিন বৈঠকটিই বাতিল করতে হয়। য়া নিয়ে তদন্ত করা হবে বলে জানিয়েছে কেন্দ্র। এদিকে আম আদমি পার্টির রোষাণলে পড়েছেন গম্ভীর।

এদিন বায়ুদূষণ রোধের বিভিন্ন পদক্ষেপ ঠিক করতে বিজেপি সাংসদ গৌতম গম্ভীর-সহ দিল্লির আরও কয়েকজন সাংসদ, এবং দিল্লি পুরসভা, দিল্লি উন্নয়ন পর্ষদ, ও কেন্দ্রীয় পরিবেশ মন্ত্রকের বেশ কয়েকজন পদস্থ কর্তাকে নিয়ে বৈঠক হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু, অদ্ভূত বিষয় হল শুধু গম্ভীরই নন, দিল্লির এই চরম অবস্থাতেও বৈঠকে আহ্বান জানানো একজনও এসে উপস্থিত হননি। বৈঠক ভেস্তে যায়।

গৌতম গম্ভীর আপাতত ইন্দোরে ভারত বনাম বাংলাদেশ প্রথম টেস্টের ধারাভাষ্য দিচ্ছেন। আরেক প্রাক্তন ক্রিকেটার ভিভিএস লক্ষ্মণের টুইট পোস্টে দেখা যায় ইন্দোরে একটি খাওয়ারের দোকানে তাঁরা হাসিমুখে জিলিপি খাচ্ছন। আর এরপরই গম্ভীরকে এক হাত নেয় আপ। তারা একটা টুইট করে বলে 'দিল্লির দম বন্ধ হয়ে যাচ্ছে আর গৌতম গম্ভীর ইন্দোরে ফুর্তি করতে ব্যস্ত'।  

এই ঘটনায় বিন্দু মাত্র লজ্জা না পেয়ে গম্ভীরও পাল্টা জবাব দিয়েছেন। তিনি তাঁর লোকসভা কেন্দ্র ও দিল্লি শহরের জন্য তিনি কী কী কাজ করেছেন তার ফিরিস্তি দিয়ে বলেছেন এই কাজগুলি মধ্য দিয়েই তাঁর দায়িত্ববোধের পরিচয় পাওয়া যায়। দিল্লির 'সৎ মুখ্যমন্ত্রী' তাঁর সম্পর্কে মিথ্যা রটাচ্ছেন বলেও অভিযোগ করেন। কিন্তু একবারও তিনি না থাকায় যে এই গুরুত্বপূর্ণ  বৈঠক বাতিল হয়েছে, তার জন্য দুঃখপ্রকাশ করেননি।

তবে এই বৈঠক কেন বাতিল হল, তা তদন্ত করে দেখা হবে বলে জানিয়েছেন, কেন্দ্রীয় পরিবেশ মন্ত্রী প্রকাশ জাভড়েকর।