Asianet News BanglaAsianet News Bangla

চিন ও পাকিস্তানের হুমকির মোকাবিলা, ৯৬টি যুদ্ধ বিমান দেশে তৈরির সিদ্ধান্ত ভারতীয় বিমান বাহিনীর

ভারতীয় বিমান বাহিনীর বাই গ্লোবাল অ্যান্ড মেক ইন ইন্ডিয়া স্কিমের অধীনে ১১৪টি মাল্টিরোল ফাইটার এয়ারক্রাফ্ট কেনার পরিকল্পনা রয়েছে।

Aatmanirbhar mission Indian Air Force will buy 96 made in india fighter jets bsm
Author
Kolkata, First Published Jun 12, 2022, 10:34 PM IST

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নেতৃত্বাধীন আত্মনির্ভর ভরত প্রকল্পের জন্য একটি বড় পদভেপ নিতে চলেছে ভারতীয় বিমান বাহিনী। ১১৪টি যুদ্ধবিমান কেনার পরিকল্পনা রয়েছে তাদের। যারমধ্যে ৯৬টি যুদ্ধবিমান ভারতে তৈরি করা হবে। বাকি ১৪টি যুদ্ধ বিমান বিদেশ থেকে কেনা হবে বা আমদানি করা হবে। 

ভারতীয় বিমান বাহিনীর বাই গ্লোবাল অ্যান্ড মেক ইন ইন্ডিয়া স্কিমের অধীনে ১১৪টি মাল্টিরোল ফাইটার এয়ারক্রাফ্ট কেনার পরিকল্পনা রয়েছে। এই পরিকল্পনার মাধ্যমে ভারতীয় কোম্পানিগুলিকে বিদেশে ক্রেতাদের সঙ্গে অংশীদারিত্ব করার অনুমতি দেওয়া হবে। সম্প্রতি ভারতীয় বিমান বাহিনী বিদেশী বিক্রেতাদের সঙ্গে একটি বৈঠকও করেছে। সেখানেই মেক ইন ইন্ডিয়া প্রকল্পটির কথা তুলে ধরা হয়েছে। সংবাদ সংস্থা এএনআইকে তেমনই জানিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকারের একটি সূত্র। সূত্রের খবর পরিকল্পনা অনুসারে, প্রাথমিক ১৮টি বিমান আমদানির পরে, পরবর্তী ৩৬টি বিমান দেশের মধ্যে তৈরি করা হবে এবং আংশিকভাবে বৈদেশিক মুদ্রা এবং ভারতীয় মুদ্রায় অর্থ প্রদান করা হবে।

শেষ ৬০টি বিমান ভারতীয় অংশীদারের প্রধান দায়িত্ব হবে এবং সরকার শুধুমাত্র ভারতীয় মুদ্রায় অর্থপ্রদান করবে, সূত্র জানিয়েছে।ভারতীয় মুদ্রায় অর্থপ্রদান বিক্রেতাদের প্রকল্পে ৬০ শতাংশের বেশি 'মেক-ইন-ইন্ডিয়া' সামগ্রী অর্জনে সহায়তা করবে, সূত্র জানিয়েছে। বোয়িং, লকহিড মার্টিন, সাব, মিগ, ইরকুট কর্পোরেশন এবং ডাসাল্ট এভিয়েশন সহ বৈশ্বিক বিমান নির্মাতারা টেন্ডারে অংশ নেবে বলে আশা করা হচ্ছে।ভারতীয় মুদ্রায় অর্থপ্রদান বিক্রেতাদের প্রকল্পে ৬০ শতাংশের বেশি 'মেক-ইন-ইন্ডিয়া' সামগ্রী অর্জনে সহায়তা করবে, সূত্র জানিয়েছে।

প্রতিবেশী চিন আর পাকিস্তান ক্রমাগত হুমকির কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে ভারতের নিরাপত্তার ক্ষেত্রে। আর সেই কারণেই এই ১১৪টি যুদ্ধবিমানের ওপর অনেকটাই নির্ভর করতে হবে ভারতীয় বিমান বাহিনীকে। আইএএফ তার ফাইটার জেটের প্রয়োজনীয়তার জন্য একটি সাশ্রয়ী সমাধানও খুঁজছে কারণ এটি এমন একটি প্লেন চায় যা অপারেশনাল খরচ কম এবং পরিষেবাতে আরও ক্ষমতা দেয়, সূত্র জানিয়েছে। তবে এখনও পর্যন্ত রাফাল যুদ্ধ বিমান নিয়ে যথেষ্ট সন্তষ্ট ভারতীয় বিমান বাহিনীর সদস্যরা। 


২০২০ সালে ৩৬টি রাফালে বিমান কেনা হয়েছিল। যায়া লাদাখ সঙ্কটের সময় চীনাদের উপর একটি চাপ বাড়াতে  ব্যাপকভাবে সাহায্য করেছিল তবে সংখ্যাটি পর্যাপ্ত নয় এবং এটির জন্য আরও বেশি সক্ষমতার প্রয়োজন হবে।বাহিনী ইতিমধ্যে LCA Mk 1A বিমানের ৮৩টির জন্য অর্ডার দিয়েছে তবে এটির জন্য এখনও আরও বেশি সংখ্যক সক্ষম বিমানের প্রয়োজন কারণ প্রচুর সংখ্যক মিগ সিরিজের প্লেনগুলি হয় পর্যায়ক্রমে শেষ হয়ে গেছে বা তাদের শেষ পায়ে রয়েছে। 
 

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios