এবার গর্ভপাতের উর্দ্ধসীমা বাড়ানোর পথে হাঁটল কেন্দ্রের মোদী সরকার। এতদিন গর্ভপাতের উর্দ্ধসীমা ছিল ২০ সপ্তাহ। সেই সময়সীমা বাড়িয়ে ২৪ সপ্তাহ করার সুপারিশ করল কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা। আসন্ন বাজেট অধিবেশনেই সংসদে এই বিষয়ে বিল  পেশ করতে চলেছে বিজেপি সরকার। বুধবার সাংবাদিক বৈঠক করে এমনটাই জানালেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী প্রকাশ জাভড়েকর।

আরও পড়ুন: বসন্ত পঞ্চমীতে ঘোষণা হল দিন, ৩০ এপ্রিল ফের খুলছে বদ্রিনাথের দরজা

মন্ত্রী বলেন, দীর্ঘদিন ধরেই গর্ভপাতের সময়সীমা বাড়ানোর দাবি উঠছিল। বিশেষজ্ঞরাও উর্দ্ধসীমা বৃদ্ধির পরামর্শ দিয়েছেন। তা মেনেই নতুন বিল তৈরি করছে কেন্দ্রীয় সরকার।

মাস চারেক আগে গর্ভপাতের সময়সীমা বাড়ানোর আবেদন জমা পড়ে সুপ্রিমকোর্টে। অবেদনকারী গর্ভপাতের উর্দ্ধসীমা ২০ সপ্তাহ থেকে বাড়িয়ে ২৬ সপ্তাহ করার দাবি জানান। সেই সময় বিষয়টি কেন্দ্রকে বিবেচনা করতে বলে শীর্ষ আদালত। এরপরেই নতুন আইনের খসড়া তৈরির কাজ শুরু হয়। 

আরও পড়ুন: শিশুদের পর্ন ভিডিও-তে আসক্ত দিল্লি, সামনে এল চাঞ্চল্যকর তথ্য

গর্ভধারণের পর চার মাস পর্যন্ত গর্ভপাত করা এখনও পর্যন্ত সংবিধান সম্মত। এ প্রসঙ্গে সুপ্রিম কোর্টে কেন্দ্র জানিয়েছিল, নাগরিকদের জীবন ও সন্তানকে সুরক্ষিত রাখা রাষ্ট্রের দায়িত্ব। একাধিক সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, গর্ভধারণের ২০ সপ্তাহে ভ্রুণের শারীরিক অক্ষমতা বা অসুস্থতা ধরা পড়ে। ফলে সেইসময় চাইলেও অন্তঃসত্ত্বারা গর্ভপাত করতে পারেন না। তাই এই উর্দ্ধসীমা বাড়ানোর প্রয়োজন। 

প্রতিবন্ধী মহিলা, ধর্ষিতা ও নাবালিকা যারা হয়তো বুঝতে পারেননি অন্তঃসত্ত্বা, তাদের এই নতুন আইনে সুবিধে হবে বলেই জানান মন্ত্রী জাভড়েকর। এর আগে অনেকেই ষষ্ঠ মাসে গর্ভপাত করাতে আদালতের শরণাপন্ন হয়েছেন। নতুন আইনে আর তা প্রয়োজন হবে না। আইন বদলের ফলে প্রসূতী মৃত্যু কমবে বলেও আশা সরকারের।