হিন্দুদের চার ধামের অন্যতম বদ্রিনাথ। উত্তরাখণ্ডের এই বিখ্যাত হিন্দু মন্দিরে পূজিত হন ভগবান বিষ্ণু। গত ১৭ নভেম্বর থেকে সাধারণ মানুষের জন্য বন্ধ ছিল এই মন্দিরের দ্বার। এবশেষে আগামী এপ্রিলে পূণ্যার্থীদের জন্য ফের খুলতে চলেছে মন্দিরের প্রধান ফটক।

আরও পড়ুন: চলে গেলেন নূরজাহান, বোন হারিয়ে শোকে বিহ্বল কিং খান

শীত ও তুষারপাতের কারণে ছয় মাস বন্ধ মন্দির। তবে আগামী ৩০ এপ্রিল ভক্তদের জন্য ফের খুলে দেওয়া হচ্ছে মন্দিরের দরজা। ভোর সাড়ে চায় ব্রহ্ম মুহুর্তে বৈদিক মন্ত্র উচ্চারণের মধ্যে দিয়ে উন্মুক্ত করা হবে প্রধান ফটক। এরপর একে একে পূণ্যার্থীরা প্রবেশ করতে পারবেন মন্দির চত্বরে।  বসন্ত পঞ্চমীর পূর্ণ্য লগ্নে তারই ঘোষণা করলেন বদ্রি-কেদার মন্দির কমিটির সভাপতি মোহন প্রসাদ থাপলিয়াল।

 

মন্দির খোলার আগে ২০ এপ্রিল হবে বদ্রি বিশালের 'মহা অভিষেক'। তার জন্য তিল থেকে তেল বের করা হবে ১৮ এপ্রিল। নরেন্দ্রনগরের তেহরি রাজার রাজদরবার থেকে এমনটাই ঘোষণা করা হল। 

আরও পড়ুন: শিশুদের পর্ন ভিডিও-তে আসক্ত দিল্লি, সামনে এল চাঞ্চল্যকর তথ্য

সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে সাড়ে দশ হাজার ফুট উচ্চতায় অবস্থিত এই মন্দিরে ভগবান বিষ্ণু পদ্মাসনে বিরাজমান। প্রতিবছরই বদ্রিনাথ দর্শন করতে দেশের নানা প্রান্ত থেকে আসেন বিশাল সংখ্যক পূণ্যার্থীদের দল। 

প্রতিবছর শীতেই বরফে ঢেকে যায় বদ্রিনাথ মন্দির। কেবল বদ্রিনাথ নয় হিমালয়ে অবস্থিত আরও তিন মন্দির কেদারনাথ, গঙ্গোত্রী এবং যমুনোত্রীও এই সময় সাদা বরফের চাদরে মুড়ে থাকে। উত্তরাখণ্ডের এই চার মন্দিরই চার ধাম হিসাবে বিখ্যাত। প্রতিবছরই অক্টোবর - নভেম্বর মাসে বন্ধ করে দেওয়া হয় মন্দরগুলির দরজা। 

 

 

প্রতিবছর পূর্ণ অর্জন করতে এই চার ধামে আসেন লক্ষ লক্ষ পূণ্যার্থীরা। ছয় মাস খোলা থাকে মন্দিরের দরজা। দেশের বাইরে বিদেশ থেকেও বহু ভক্তের আগমন হয় এই সময়।