গত তিন সপ্তাহ ধরে রাজধানীর সীমান্তে বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন কৃষকরা। বিক্ষোভে সামিল মূলতঃ পঞ্জাব, হরিয়ানা ও উত্তরপ্রদেশ থেকে আসা হাজার হাজার কৃষক। ভারতের নতুন কৃষি আইন বাতিলের দাবি করছেন তাঁরা। এই নিয়ে কেন্দ্রের সঙ্গে বেশ কয়েক দফা বৈঠক করেছেন কৃষক নেতারা। সমস্য়ার সমাধান হয়নি। সরকারের দেওয়া লিখিত প্রস্তাবও ফিরিয়ে দিয়েছেন কৃষকরা। এই অবস্থায় বৃহস্পতিবারই 'কৃষক ভাই বোন'দের উদ্দেশ্যে একটি খোলা চিঠি লিখলেন কেন্দ্রীয় কৃষিমন্ত্রী নরেন্দ্র সিং তোমর। যা দেশের সকল কৃষককে পড়ার এবং সারা দেশে ছড়িয়ে দেওয়ার আর্জি জানিয়েছেন স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

এদিন, কৃষকদের তাঁর উপর বিশ্বাস রাখার আর্জি জানিয়ে কেন্দ্রীয় কৃষিমন্ত্রী দাবি করেছেন, কৃষকদের স্বার্থেই কৃষি আইন বিষয়ে এই সংস্কারগুলি করা হয়েছে। এই সংস্কারগুলি ভারতীয় কৃষিতে একটি নতুন অধ্যায় রচনা করবে। দেশের কৃষকদের আরও স্বাধীন ও ক্ষমতায়িত করবে। সেই সঙ্গে তিনি বলেছেন, 'সবকা সাথ, সবকা বিকাশ, সবকা বিশ্বাস' এই মন্ত্র নিয়েই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নেতৃত্বে, বিজেপি সরকার এগিয়ে চলেছে। বৈষম্য ছাড়া সবার স্বার্থ রক্ষা করার চেষ্টা করে চলেছে। গত ছয় বছরের ইতিহাস তার সাক্ষী বলেও দাবি করেছেন নরেন্দ্র সিং তোমর।

কেন্দ্রীয় কৃষিমন্ত্রীর লেখা এই চিঠিটি রিটুইট করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তিনি জানান, কেন্দ্রীয় কৃষিমন্ত্রী কৃষক ভাই-বোনদের চিঠি লিখে নিজের অনুভূতি প্রকাশ করেছেন। তাদের সঙ্গে নম্র ভাষায় আলোচনা করার চেষ্টা করেছেন। সমস্ত 'অন্নদাতা'কে চিঠিটি পড়ার অনুরোধ জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী মোদী। দেশবাসীকেও এই চিঠি যত বেশি সম্ভব মানুষের মধ্যে ছড়িয়ে দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

অন্যদিকে, এদিনও কৃষি ভবনে কৃষি সংস্কার আইনের সমর্থন জানিয়ে দেশের বিভিন্ন রাজ্য থেকে বেশ কয়েকটি কৃষি পণ্য উৎপাদক সংগঠনের প্রতিনিধিরা কেন্দ্রীয় কৃষিমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাত করেছেন বলে জানিয়েছেন নরেন্দ্র সিং তোমর। ২০ ডিসেম্বরই ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে মধ্যপ্রদেশে অনুষ্ঠিত একটি কৃষকসভায় বক্তৃতা দেবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। বিভিন্ন কঋষি পণ্য উৎপাদন সংস্থার সমর্থন, কৃষিমন্ত্রীর খোলা চিঠি, প্রধানমন্ত্রীর সভায় কতটা কাজ হয়, সেটাই এখন দেখার।