শুক্রবার সন্ধ্যায় কেরলের কোঝিকোড়ের করিপুর বিমানবন্দরে ঘটেছে বড়সড় বিমান দুর্ঘটনা। অবতরণের সময় রানওয়ে থেকে পিছলে গিয়ে একটি ৩০ ফুট গভীর খালে পড়ে যায় বিমানটি। এখনও পর্যন্ত এই মর্মান্তিক ঘটনায় ১৪ জনের মৃত্যু এবং অন্তত ১২৩ জন আহত হয়েছেন বলে জানা গিয়েছে।

মালপ্পুরম জেলার এসপি জানিয়েছেন, এই দুর্ঘটনায় কমপক্ষে ১৪ জনের মৃত্যু হয়েছে এবং ১২৩ জন আহত হয়েছেন। আহতদের মধ্যে ১৫ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। ঘটনাস্থলেই এক পাইলটের এবং ২ যাত্রীর মৃত্যু হয়েছিল বলে প্রাথমিকভাবে জানা গিয়েছিল। পরে হাসপাতালে মৃত্যু হয় কো-পাইলটের-ও। পরে পুলিশের পক্ষ থেকে হতাহতের এই হিসাব প্রকাশ করা হয়।

 

এয়ার ইন্ডিয়া এক্সপ্রেস সংস্থার পক্ষ থেকে বন্দে ভারত মিশনের আওতায় দুবাই থেকে কেরলগামী ওই বিমানের যাত্রী তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। জানা গিয়েছে  মোট ১৭৮ জন যাত্রী যাত্র শুরু করেছিল বিমানটি। তারমধ্যে অন্তত ১০ জন শিশুও ছিল। এছাড়া, উড়োজাহাজটিতে মোট ৬ জন ক্রু সদস্য ছিলেন। এরমধ্যে দু'জন পাইলট।

বিমানটি রানওয়ে থেকে পিছলে যাওয়ার পরই বিমানের সামনের অংশ পিছনের অংশ থেকে আলাদা হয়ে যায়। আহত সকলকেই অ্যাম্বুল্যান্সের সাহায্যে নিকটবর্তী হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। হতাহতের সংখ্যা সময়ের সঙ্গে সঙ্গে আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।