ব্রিটেন সন্ধান পাওয়া নতুন করোনাভাইরাসের স্ট্রেন সম্পর্কে তাঁদের বিষদে জানাতে হবে। এবার এমনটাই দাবি জানিয়েছেন এয়ার ইন্ডিয়ার পাইলটরা। মঙ্গলবার এই মর্মে তাঁরা একটি চিঠি পাঠিয়েছেন অপারেশন ডিরেক্টরকে। সেখানে  বলা হয়েছে, মহামারির শুরুর প্রথম দিক থেকেই এয়ার ইন্ডিয়া ত্রাণ মিশন নেতৃত্ব দিচ্ছে। দেশের ও বিদেশের একপ্রান্ত থেকে অন্যপ্রান্তে প্রয়োজনী পণ্য পৌঁছে দিচ্ছে। বিশ্বের একাধিক দেশ থেকে ভারতীয় নাগরিকদের ফিরিয়ে এনেছে। নিজেদের জীবনের ঝুঁকি নিয়ে এই কঠিন সময় কাজ করে যাচ্ছে। তাই করোনাভাইরাসের নতুন স্ট্রেন সম্পর্কে বিষদ তথ্য পাওয়ার অধিকার তাঁদের রয়েছে। তাঁদের দাবি, নতুন স্ট্রেন কতটা ক্ষতি করতে পারে বা কী ভাবে সংক্রমিত করে সে সম্পর্কে প্রয়োজনী তথ্য় সরবরাহ করতে হবে। 

চিঠিতে আরও বলা হয়েছে সংস্থাটি করোনাভাইরাস সংক্রান্ত তথ্য সংগ্রহ  ও প্রচারের জন্য দায়বদ্ধ। একই সঙ্গে দাবি জানান হয়েছে, যেসব পাইলটরা করোনা পরীক্ষা করিয়েছেন বা ভবিষ্যতের করাবেন তাঁদের অবহিত করাতে হবে তাঁরা যেন  করোনাভাইরাসের মারাত্মক এই রূপটির নমুনা তাঁদের শরীরে রয়েছে কিনা তা পরীক্ষা করে নেন। এই মর্মে সমস্ত পরীক্ষাগারগুলিকে নির্দেশ দেওয়ার কথাও বলা হয়েছে। তাঁরা দেশের স্বার্থে ও তাঁদের পরিবারের স্বার্থে এই দাবি জানিয়েছেন। তাঁরা আশঙ্কা করছেন নতুন স্ট্রেনের মাধ্যমে তাঁরা যদি সংক্রমিত হন তাহলে তাঁদের পরিবারের সদস্যরাই আক্রান্ত হতে পারেন। আর সেখান থেকেও রোগ ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা রয়েছে। 

অন্যদিকে ব্রিটেনের বিমান চলাচলের ওপর নিষেধাজ্ঞার সময়সীমা আরও বাড়তে পারে কেন্দ্রীয় সরকার। তেমনই ইঙ্গিত দিয়েছেন মন্ত্রী হরদীপ সিং পুরী। তিনি বলেন এটি খুববেশি দীর্ঘায়িত করা হবে না। আরও দুই-একদিন বাড়ান হতে পারে। তারই মধ্যে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে বলেও জানিয়েছেন তিনি। ব্রিটেন নতুন করোনাভাইরাসের স্ট্রেনের সন্ধান পাওয়ার পর গত সপ্তাহেই চলতি মাসের শেষ অবধি ব্রিটেনের বিমান পরিষেবার ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছিল।