চিনের সঙ্গে সীমান্ত বিবাদ নিয়ে এখনও উত্তেজনা রয়েছে দুই দেশের মধ্যে। তার মধ্যে সোমবার সকালে ৩ দিনের সফরে রাশিয়া গেলেন দেশের প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং। ৭৫তম বিজয় দিবসের কুচকাওয়াজে অংশ নিতেই রাজনাথের এই রাশিয়া যাত্রা বলে জানা যাচ্ছে।

 

 

চিনের সঙ্গে সীমান্ত বিবাদ নিয়ে দেশের বিরোধী রাজনৈতিক শিবিরের একটা বড় অংশের প্রবল সমালোচনার মুখে পড়েছে কেন্দ্র। এই পরিস্থিতিতে রাশিয়া যাওয়ার আগে রবিবার দেশের তিন বাহিনীর সেনাপ্রধানদের সঙ্গে বৈঠক করেন রাজনাথ সিং।সূত্রের খবর, বৈঠকে প্রতিরক্ষামন্ত্রী সামরিক বাহিনীর প্রধানদের উদ্দেশে বলেন, স্থল, জল এবং আকাশপথে চিনের গতিবিধিতে কড়া নজরদারি বজায় রাখতে হবে। একই সঙ্গে তিনি নির্দেশ দেন, “চিনা বাহিনীর যে কোনো রকমের দুর্ভাগ্যজনক পদক্ষেপের মোকাবিলায় ‘কঠোর’ পদ্ধতি অবলম্বন করুন”।

সভায় সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়, প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় উত্তেজনা বাড়াতে পারে, এমন কোনো পদক্ষেপ ভারত নেবে না। তবে অন্য পক্ষ যদি উত্তেজনা বাড়িয়ে দেয়, তা হলে ভারতও তার সমুচিত প্রতিক্রিয়া জানাবে। চিন সীমান্তে মোতায়েন সশস্ত্র বাহিনী চিনের যে কোনো রকমের নীতিবিরুদ্ধ পদক্ষেপের ‘প্রত্যুত্তর’ দিতে ‘পূর্ণ স্বাধীনতা’ পাবে বলেও বৈঠকে  স্থির হয়। এমনকী লাদাখের গলওয়ান উপত্যকায়  ভারত-চিন সেনার সংঘর্ষের পর আগ্নেয়াস্ত্র ব্যবহারের নীতি বদলাচ্ছে ভারত। জানা গিয়েছে, নতুন নিয়ম অনুযায়ী চিন সীমান্তে চূড়ান্ত ক্ষেত্রে সেনা আগ্নেয়াস্ত্র ব্যবহার করতে পারবে। এই নতুন নিয়মে সায় মিলেছে প্রতিরক্ষামন্ত্রকের।

এই বৈঠকের পরেই সোমবার সকালে ৩ দিনের জন্য রাশিয়ার উদ্দেশে রওনা দেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে জার্মানির বিরুদ্ধে সোভিয়েতের ৭৫তম বিজয় উদযাপনে মস্কোর মিলিটারি প্যারেডে আমন্ত্রণরক্ষায় তিনি যাচ্ছেন বলে ট্যুইট করেন রাজনাথ।

গত ৯ মে রাশিয়ায় বিজয় দিবসের এই প্যারেড অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা থাকলেও করোনা মহামারির কারণে তা পিছিয়ে দেওয়া হয়েছিল। এই অনুষ্ঠানে ভারত ছাড়াও আরও ১১টি দেশ অংশ নেবে জানা যাচ্ছে প্যারেড মার্চিংয়ে থাকবে চিনও। 

এদিকে চিনের সঙ্গে উত্তেজনা বাড়ার মধ্যেই  রাশিয়া থেকে ৩৩টি যুদ্ধ বিমান কিনতে কেন্দ্রীয় সরকারকে প্রস্তাব দিয়েঠছে ভারতীয় বায়ুসেনা। প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাশিয়া সফরে সেই বিষয়েও আলোচনা হতে পারে বলে সূত্রের খবর।