বিজেপির ঘরেই রীতিমত থাবা বসিয়েছে করোনাভাইরাস। রবিবার সকালেই মৃত্যু হয়েছে উত্তর প্রদেশে মন্ত্রিসভার সদস্য কমল রানি বরুণের। যিনি ভারতীয় জনতা পার্টির টিকিটেই কানপুরের ঘতমপুর বিধানসভা থেকে জয়ী হয়েছিলেন। যোগী মন্ত্রিসভায় গুরুত্বপূর্ণ কারিগরি শিক্ষা দফতরের দায়িত্বে ছিলেন। ১৪ দিন লখনৌএর হাসপাতালে থাকা পর রবিবার সকালেই তাঁর মৃত্যু হয়। মাত্র ৬২ বছর বয়সেই এক ছেলে ও এক মেয়েকে রেখে তিনি মারা গেলেন।

উত্তর প্রদেশের বিজেপির সভাপতি স্বতন্ত্র দেব সিং-এর করোনা ধরা পড়েছে। সোশ্যাল মিডিয়ায় বার্তা দিয়ে একথা জানিয়েছেন তিনি। তিনি আরও জানিয়েছেন, করোনা সংক্রমণের মাঝারি উপসর্গ দেখা দিয়েছিল। তাঁর সংস্পর্শে যাঁরা এসেছেন তাঁদের অবিলম্বে বিচ্ছন্ন হওয়ার আবেদন জানিয়েছেন তিনি।  

বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গেই খবর আসে মোদী সরকারের দ্বিতীয় ব্যক্তিত্ব অমিত শাহও করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। করোনাভাইরাসের লক্ষণ দেখেই তিনি পরীক্ষা করেছিলেন। এদিন রিপোর্ট পজেটিভ হয়। দিল্লির একটি হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রী তথা বিজেপির নেতা অমিত শাহ, অমিত শাহ আরোগ্য কামনা করে দলীয় নেতৃত্ব যেমন সোশ্যাল মিডিয়ায় বার্তা দেন তেমনই বিরোধী রাজনীতিক দলের নেতারাও তাঁর আরোগ্য কামনা করেন। তালিকায় রাহুল গান্ধী অরবিন্দ কেজরিওয়াল, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, অভিষেক মনু সিংভির পাশাপাশি হেমন্ত বিশ্বশর্মা তেজস্বী সুরিয়ার নামও রয়েছে। 

এদিনই করোনাভাইরাসের আক্রান্ত হয়েছেন তামিলনাড়ুর রাজ্যপাল বনোয়ারিলাল পুরোহিত। যদিও তাঁর মধ্যে তেমন কোনো উপসর্গ দেখা যায়নি। তবে তবে আরও একবার তাঁর করোনা পরীক্ষা হবে বলেই মেডিক্যাল বুলেটিনে জানান হয়েছিল। বর্তমানে তাঁকে হাসপাতালে  আইসোলেশনে রাখা হয়েছে। 

গত ২৫ জুলাই করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছিলেন মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিং চৌহান। তিনি নিজেই সোশ্যাল মিডিয়া বার্তা দিয়ে জানিয়েছিলেন তিনি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছিলেন। বিজেপি টিকিটেই তিনি মুখ্যমন্ত্রী হয়েছেন। 

তাঁর আগেই অবশ্য করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছিলেন গত ফেব্রুয়ারি মাসে দল বদল করে বিজেপির খাতায় নাম লেখানো প্রাক্তন কংগ্রেস নেতা জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া।