ফের বিদেশে পাড়ি দিয়েছেন রাহুল গান্ধী। জানা গিয়েছে  ছুটি কাটাতে কম্বোডিয়ায় গিয়েছেন সনিয়া পুত্র। সামনেই মহারাষ্ট্র ও হরিয়ানায় বিধানসভা ভোট। তার আগে রাহুলের এভাবে বিদেশে চলে যাওয়া নিয়ে দলের মধ্যেই অসন্তোষ দানা বাঁধছে। আর রাহুলের এই বিদেশ ভ্রমণকে নির্বাচনী হাতিয়ার করলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিশ শাহ। হরিয়ানার লোহারুতে নির্বাচনী জনসভায় কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী তথা বিজেপি সভাপতি বলেন, নির্বাচনের আগেই ছুটি কাটানোর কথা মনে পড়ল রাহুল গান্ধীর। 

জনসভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে হরিয়ানার জমি কেলেঙ্কারির ঘটনায় কংগ্রেসের দিকে অভিযোগের আঙ্গুল তোলেন অমিত শাহ। মহরাষ্ট্র ও হরিয়ানার মত রাজ্যে নির্বাচনের আগে রাহুলের ছুটিতে চলে যাওয়া নিয়ে প্রশ্ন তোলেন।  হরিয়ানার মানুষের কাছে এসে  রাহুলকে জবাব দিতে হবে বলেও দাবি করেন শাহ।  

রাহুল গান্ধী ফুলটাইম রাজনীতিক নন, আংশিক সময়ের নেতা। প্রাক্তন কংগ্রেস সভাপতি সম্পর্কে এমন মন্তব্যই করে থাকে বিরোধী শিবির। মহারাষ্ট্র ও হরিয়ানায় বিধানসভা ভোটের আগে ভোটপ্রচার না করে রাহুলের এভাবে বিদেশে চলে যাওয়া নিয়ে তাই নতুন করে বিতর্ক দানা বাঁধছে রাজনৈতিক মহলে। এর আগেও একাধিকবার রাগুল গান্ধীর বিদেশযাত্রা নিয়ে বিস্তর আলোচনা-সমালোচনা হয়েছে। মাঝে মাঝেই তাঁকে অজ্ঞাতবাসে যেতে দেখা যায়। লোকসভা ভোেট ভরাডুবির পর দলের সভাপতিত্ব ছাড়েন রাহুল। তারপর থেকেই রাজনীতিতে অনিয়মিত তিনি। দলের কর্মসূচিতেও আর তেমন ভাবে দেখা যাচ্ছে না তাঁকে। জাতীয় ইস্যুতে ট্যুইট করেই সরব হচ্ছেন তিনি। যদিও গত ২ অক্টোবর রাজধানীতে কংগ্রেসের পদযাত্রায় তাঁকে দেখা গিয়েছিল। তারপরেই রাহুলের বিদেশ ভ্রমণ নিয়ে তাই উঠছে প্রশ্ন। যদিও দেশে ফিরেই  খুব শীঘ্রই  রাহুল প্রচারে নামবেল বলে দাবি করছে কংগ্রেস শিবির।