নাগরিকত্ব বিল-এর বিরোধিতা-কে কেন্দ্র করে আগুন জ্বলছে উত্তর-পূর্বের রাজ্যগুলিতে। এরমধ্যেই উত্তর-পূর্বে পা দিচ্ছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী তথা বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ। এদিন আবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও অমিত শাহ-র নাম করে অসমবাসীকে রাদনৈতিক ও সাংস্কৃতিক সুরক্ষা দেওয়ার আশ্বাস দিলেন অসমের মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সোনওয়াল।

সিএবি-র আগুনে জ্বলছে অসম ও ত্রিপুরা। যার জেরে স্থান পরিবর্তনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে-র গুয়াহাটি শীর্ষ বৈঠকের। তবে পূর্বনির্ধারিত সফর বাতিল করছেন না অমিত শাহ। তবে অসম বা ত্রিপুরায় নয়, ১৫ ডিসেম্বর তিনি আসবেন মেঘালয়ের শিলঙ শহরে, উত্তর-পূর্ব পুলিশ অ্য়াকাডেমি-তে। তবে সেখানেও একেবারে মসৃণ হবে না তাঁর সফর, এরকমই আশঙ্কা করা হচ্ছে।  

এদিকে বৃহস্পতিবার রাজ্যেজুড়ে চূড়ান্ত  বিশৃঙ্খলার মধ্যে অসমের মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সোনওয়াল রাজ্যবাসীকে আশ্বস্ত করার চেষ্টা করলেন। এদিন সংবাদ সংস্থা এএনআই-কে দেওয়া এক সাক্ষাতকারে তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী ও কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী স্পষ্টই জানিয়ে দিয়েছেন সংবিধান অনুসারে অসমের জনগণের রাজনৈতিক, সাংস্কৃতিক সুরক্ষা নিশ্চিত করতে কেন্দ্র অসম অ্যাকর্ডের ষষ্ঠ ধারা প্রয়োগ করবেই। এই বিষয়ে মোদী-শাহ প্রতিশ্রুতিবদ্ধ বলে দাবি করেন তিনি।

তাঁর মতে অসমের জনগণ মোটেই নাগরিকত্ব বিলের বিরোধী নয়। একাংশের মানুষ মিথ্যা অপপ্রচারের মাধ্যমে গোটা রাজ্যের মানুষকে বিভ্রান্ত করছে। উত্তেজনা ছড়াননোর উদ্দেশ্যে রটানো হচ্ছে অসমে ১ থেকে ১.৫ কোটি মানুষ-কে নাগরিকত্ব দেওয়া হবে। এটা সর্বৈব মিথ্যা বলে দাবি করেন মুখ্যমন্ত্রী। একইসঙ্গে তিনি অসমের সমস্ত অংশের মানুষের কাছে শান্তি ও শৃঙ্খলা বজায় রাখার জন্য আবেদন করেছেন।