স্বাধীনতা দিবসের দিন ফের যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘন করল পাকিস্তান। বৃহস্পতিবার যখন সারা দেশ স্বাধীনতা দিবস উদযাপনের আনন্দে মেতে ছিল, তখন সীমান্তে ফের হামলা চালাল পাকিস্তানি সেনা। সংবাদ সংস্থা সূত্রে খবর, বৃহস্পতিবার স্বাধীনতা দিবসের দিন জম্মু ও কাশ্মীরের উরি এবং রাজৌরি সেক্টরে পাক সেনারা যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘন করে। 

৭৩ তম স্বাধীনতা দিবসের সকালে জম্মু ও কাশ্মীরের কৃষ্ণা ঘাঁটি সেক্টরের নাঙ্গি টেকরা অঞ্চলে সংঘর্ষবিরোধী চুক্তি লঙ্ঘন করে হামলা চালায় বলে খবর। তবে ভারতীয় সেনাবাহিনীও কিন্তু সুকৌশলে পাক সেনাবাহিনীর যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘনের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নিয়েছে বলে খবর। সংবাদ সংস্থা সূত্রে খবর, যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘনকারী তিন পাক সেনাকে গুলি করে খতম করল ভারতীয় সেনার দল। জানা গিয়েছে, পাকিস্তানে মৃত তিনজন পাক সেনার দেহও সনাক্ত করা গিয়েছে বলে জানা গিয়েছে। তাদের নাম নায়েক তনভির, সিপাহি রামাজান এবং লান্স নাইক তৈমুর। 

 

পরিস্থিতি ঠিক থাকলে অস্ত্র ছাড়াই সেনারা মেলামেশা করবেন উপত্যকাবাসীর সঙ্গে:সেনাপ্রধান

অন্যদিকে পাক সেনার তরফে দাবি করা হয়েছে যে, সীমান্তে সংঘর্ষবিরতি লঙ্ঘন করার জন্য পাঁচ ভারতীয় সেনা জওয়ানের মৃত্যু হয়েছে। যদিও ভারতীয় সেনাবাহিনীর তরফে এই মৃত্যুর দাবি কার্যত উড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। প্রসঙ্গত খবর ছিল যে, জম্মু ও কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা প্রদানকারী ৩৭০ ধারা বাতিল করে দেওয়ার পর থেকে সীমান্তে আরও বেশি করে পুলিশ মোতায়েন করেছিল পাক সেনা। যদিও সেনাপ্রধান জেনারেল বিপিন রাওয়াত জানিয়েছেন, পাক সেনাবাহিনীর এই বাড়তি নজরদারি নিতান্তই 'সতর্কতামূলক পদক্ষেপ', তাই তা নিয়ে বাড়তি চিন্তার কোনও কারণ নেই। তবে প্রয়োজনে প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানিয়েছিলেন তিনি।