এবার দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি চান। সপ্তদশ লোকসভা নির্বাচনের পরে গঠিত হতে চলা মন্ত্রিসভায় আর থাকতে চান না অরুণ জেটলি। এই মর্মে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে চিঠি দিলেন তিনি।  শারীরিক অসুস্থতার জন্য এই গুরু দায়িত্ব থেকে এবার অব্যহতি চাইছেন জেটলি।

নোট বাতিল থেকে শুরু করে জিএসপি পরিষেবা চালু করা প্রতি ক্ষেত্রেই জেটলির পরামর্শ মেনেই সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। কালো টাকা ফেরানোর বিষয়েও সরকার অভিভাবকের মতো তার পরামর্শ শুনেছেন। কিন্তু এই দায়ভার থেকে নিস্কৃতি চাইছেন তিনি। 

নিজের টুইটারে জেটলি স্পষ্ট লিখেছেন , স্বাস্থ্যের জন্যে আরও সময় দিতে হবে। তাই নতুন এনডিএ  সরকারের দায়িত্ব নিতে চান না তিনি। 

এই টুইটেই চিঠির প্রতিলিপিও শেয়ার করেছেন তিনি। সেখানে লেখা রয়েছে, ১৮ মাস ধরে আমি অসুস্থ। চিকিৎসকেরা আমায় অনেকটা সুস্থ করে তুলেছে। আমি আপনার কেদারনাথ যাত্রার আগে আপনার সঙ্গে দেখা করছিলাম। তখনই আপনাকে জানিয়েছি, প্রচারের সমস্ত দায় দায়িত্ব আমি মাথা পেতে নিয়েছি। কিন্তু আগামী দিনে আমাকে গুরুদায়িত্ব না দিলে আমি আমার চিকিৎসায় মন দিতে পারব।

যদিও জেটলি আশ্বাসল দিয়েছেন  সরকারের প্রত্যক্ষ অংশীদার না হলেও দল ও সরকারকে সাহায্য করতে তাঁর মন তৈরি। প্রসঙ্গত, অনেক দিন ধরেই ভুগছেন তিনি। গত বছর মে মাসে তার কিডনি প্রতিস্থাপন করা হয়।  এই বছর জানুয়ারিতে আরও একটি জটিল অস্ত্রোপচার হয় তাঁর। টিস্যুর ক্যানসারের চিকিৎসার কারণে শেষ বাজেট অধিবেশনেও থাকতে পারেন নি তিনি।তখন দায়িত্ব দেওয়া হয় পীযূষ গোয়েলকে। 

রাত পোহালেই নতুন মন্ত্রীসভা গঠন। জেটলির পরিবর্তে কাকে বেছে নেন মোদী সেটাই দেখার।