সপ্তদশ লোকসভা অধিবেশনের শুরুতে নাটকীয়তা কিছু কম ছিল না। প্রতিবারের মতো এবারেও লোকসভার প্রথম অধিবেশন শুরু হল সাংসদদের শপথ গ্রহণের মাধ্যমে। 

এদিন বিজেপি সাংসদ বাবুল সুপ্রিয় যখন এগিয়ে এলেন শপথবাক্য পাঠ করার জন্য, তখন গোটা সংসদ ভবন জয় শ্রী রাম স্লোগানে ফেটে পড়েছিল। একইভাবে বিজেপি সাংসদ দেবশ্রী চৌধুরীও যখন শপথবাক্য পাঠ করলেন তখন সংসদ গমগম করে উঠেছিল জয় শ্রী-রাম স্লোগানে। তবে এইভাবে সংসদে জয় শ্রী-রাম স্লোগান তোলার বিষয়টিকে কটাক্ষ করেছেন মন্ত্রী নভনীত রানা। তাঁর কথায় জয় শ্রী-রাম স্লোগানতোলার জন্য মন্দির রয়েছে। তিনি আরও বলেন সকল ধর্মই সমান, এইভাবে কারওর নাম নিয়ে স্লোগান তোলা ঠিক নয়। 

প্রসঙ্গত, সাম্প্রতিক রাজনীতিতে এই জয় শ্রী-রাম স্লোগান নিয়ে এ রাজ্যে কম জলঘোলা হয়নি। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায় যেভাবে জয় শ্রী-রাম স্লোগান শুনে মেজাজ হারিয়েছেন, তাতে তাঁকে নিয়ে কিন্তু কম সমালোচনা হয়নি। বিরোধী নেতারে বার বার তাঁকে এই নিয়ে কটাক্ষ করেছেন। তৃণমূল নেত্রী এর পাল্টা 'জয় বাংলা' স্লোগান তুলেছেন।  

আর এবার অল ইন্ডিয়া মজলিশ-এ- ইত্তেহাদুল-এর সভাপতি আশাউদ্দিন ওয়ায়েসি গত মঙ্গলবার সংসদে শপথ গ্রহণ করতে এসে 'আল্লাহ আকবর' ধ্বনি তুললেন। এদিন আশাউদ্দিন ওয়ায়েসি যখন এদিন শপথ নিতে আসেন তখন বাকি সাংসদরা আচমকাই জয় শ্রী-রাম স্লোগান তুলতে শুরু করেন। আশাউদ্দিন ওয়ায়েসি গোটা শপথবাক্য পাঠ করার পর একে একে 'জয় ভীম', 'জয় মীম', 'তকবীর আল্লাহ আকবর', 'জয় হিন্দ' স্লোগান তোলেন। 

জয় শ্রী-রাম স্লোগান প্রসঙ্গে আশাউদ্দিন জানিয়েছেন, 'আমাকে দেখে তাঁদের এই বিষয়টি মনে পড়েছে দেখে আমার খুবই ভাল লাগছে। আশা করছি তাঁরা বিহারের মুজঃফরপুরে শিশুমৃত্যুর বিষয়টিও মাথায় রাখবেন'।