জম্মু ও কাশ্মীরের বিশেষ সুযোগ সুবিধা ও মর্যাদা প্রদানকারী ৩৭০ ধারা রদ করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়ার পর থেকেই উপত্যকার পরিবেশ থমথমে। উপত্যকার পাশাপাশি গোটা সীমান্তে মুড়ে ফেলা হয় নিরাপত্তার চাদরে। তবে উপত্যকাকে ঢেলে সাজাতে চান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। আর এরপরই অন্তত ৭০ জন বন্দি বিচ্ছিন্নতাবাদীকে কাশ্মীর থেকে নিয়ে আসা হল আগ্রা কেন্দ্রীয় কারাগারে। 

তাদের অধিকাংশেরই বিরুদ্ধে নিরাপত্তাবাহিনীকে লক্ষ্য করে পাথর ছোঁড়ার অভিযোগ রয়েছে। সংবাদ সংস্থা সূত্রে খবর, বায়ুসেনার বিশেষ বিমানে করে তাদের আগ্রার সংশোধনাগারে নিয়ে আসা হয়েছে। সামনেই ঈদ, এই সময়ে কোনও অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে নিরাপত্তা ব্যবস্থা আরও কড়া হয়েছে জম্মু ও কাশ্মীরে। তাই যাতে কোনও অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে সেই কারণেই বন্দিদের স্থানান্তরিত করা হল বলে সূত্রের খবর। 

প্রসঙ্গত, জম্মু ও কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা বিলোপের পর থেকেই নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করতে উপত্যকায় মোতায়েন করা হয়েছে অতিরিক্ত সেনাবাহিনী। ওমর আবদুল্লা,  মেহেবুবা মুফতি-র মতো জম্মু ও কাশ্মীরের একাধিক রাজনৈতিক নেতাদের অনেককে গৃহবন্দি করা হয়েছে আবার কাউকে সতর্কতামূলক গ্রেফতার করেছে জম্মু ও কাশ্মীরের নিরাপত্তাবাহিনী। আর ফলে বেশ কিছু এলাকায় আন্দোলনের প্রভাব পড়তে শুরু করে আর সেই কারণেই বন্দিদের জেল স্থানান্তরের ভাবা হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে।