গ্রামের মহিলাদের সঙ্গে খারাপ ব্যবহার করেছেন তিনি। যার জেরে অস্ট্রেলিয়ার এক পর্যটককে  কর্ণাটকের বাগলাকোট জেলার গ্রামের বাসিন্দারা গণপ্রহার দিয়েছে বলে জানা গিয়েছে।  গুরুতর আহত অবস্থায়  স্থানীয় পুলিশ  অস্ট্রেলিয়ার ওই পর্যটককে বেসরকারি একটি হাসপাতালে ভর্তি করে। বর্তমানে অস্ট্রেলীয় পর্যটকের অবস্থা স্থিতিশীল বলে জানা গিয়েছে।

বাগলাকোটের এসরি লোকেশ জাগালাসার জানিয়েছেন, সোমবার রাত সাড়ে নয়টা নাগাদ ঘটনাটি ঘটে। উইলিয়াম কে জেমস নামের ওই পর্যটক বাদামি থেকে বাগলাকোটে যাওয়ার জন্য বাসে উঠেছিলেন। তিনি একা ছিলেন। কিন্তু বাস থেকে হঠাৎ করে তিনি নেমে যান। গন্তব্য আসার আগেই কেন তিনি বাস থেকে নেমে গেলেন, সেই বিষয়ে আমরা তদন্ত শুরু করেছি। স্থানীয় বাসিন্দারা অভিযোগ করেছেন, সেখানকার মেয়েদের সঙ্গে তিনি খারাপ ব্যবহার করেছেন। উইলিয়ামস ওপর একসঙ্গে অনেকে হামলা করেছে। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে তিনি বাস থেক কোনকানকোপ্পাতে নামের একটি গ্রামের কাছে নেমে পড়েছিলেন। সেখান থেকে বাদামি প্রায় ১৭ কিলোমিটার দূরে। 

গুরুতর আহত অবস্থায় তাঁকে দ্রুত হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। চিকিৎসকরা জানান, তিনি মদ্যপ ছিলেন। তবে বর্তমানে তাঁর জীবনহানির কোনও আশঙ্কা নেই। উইলিয়ামসের খবর অস্ট্রেলীয় দূতাবাসে পাঠানো হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। তবে উইলিয়ামসের বিরুদ্ধে গ্রামের স্থানীয় বাসিন্দারা কোনও অভিযোগ দায়ের করেনি বলে জানা গিয়েছে। তবে উইলিয়ামসের ওপর কতজন হামলা করেছে, সেই বিষয়ে পুলিশ তদন্ত শুরু করেছে। তবে এখনও পর্যন্ত  এই বিষয়ে কোনও প্রমাণ বা ভিডিও পুলিশের হাতে পড়েনি বলে জানা গিয়েছে।