শোকের ছায়া মন্নতে। বোনকে হারিয়ে ভেঙে পড়েছেন বাদশা। দীর্ঘ রোগভোগের পর মঙ্গলবার পেশোয়ারে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন নূরজাহান। যিনি আবার সম্পর্কে শাহরুখের খুড়তুতো বোন। তাই বোনের মৃত্যু সংবাদ পেয়ে স্বাভাবিক নিয়মেই শোকস্তব্ধ কিং খান।

আরও পড়ুন: শিশুদের পর্ন ভিডিও-তে আসক্ত দিল্লি, সামনে এল চাঞ্চল্যকর তথ্য

শাহরুখ খানের বাবা ও নূরজাহানের বাবা দুই ভাই ছিলেন। এক ভাইয়ের ঠিকানা পাকিস্তান আর আরেক ভাইয়ের দেশ ভারত হলেও দুই পরিবারের মধ্যে সম্পর্ক রয়ে গিয়েছিল। খুড়তুতো বোনের সঙ্গে ফোনে নিয়মিত যোগাযোগও রাখতেন শাহরুখ। নূরজাহানের স্বামী আসিফ বুরহান জানিয়েছেন মুখের ক্যানসারে ভুগছিলেন তিনি। পেশোয়ারের হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। মৃত্যুকালে বয়স হয়েছিল ৫২ বছর।

আরও পড়ুন: নামকরা সাংবাদিককে চাঁচাছোলা প্রশ্ন, বিমানে ওঠার অধিকার হারালেন কমেডিয়ান

বোনের সঙ্গে নিয়মিত দেখা না হলেও ফোনে যোগাযোগ রাখতেন বাদশা। শাহরুখের সঙ্গে দেখা করতে ১৯৯৭ সালে প্রথমবার স্বামীকে নিয়ে ভারতে আসেন নূরজাহান। এরপর   ২০১১ সালে ফের একবার এদেশে এসেছিলেন তিনি। পেশোয়ারের মহল্লা শাহ ওয়ালি কত্তাল এলাকার বিসন্দা ছিলেন নূরজাহান। আত্মীয়-পরিজনদের সঙ্গে দেখা করতে ছোটবেলায় বাবা-মার সঙ্গে  শাহরুখও দু'বার পেশোয়ার গিয়েছিলেন।

 

 

পাকিস্তানের রাজনীতিতে যথেষ্ট সক্রিয় ছিলেন নূরজাহান। জেলা এবং শহরে কাউন্সিলর হিসাবে দায়িত্বও সামলেছেন শাহরুখের খুড়তুতো এই বোন। ২০১৮ সালে পাকিস্তানের সাধারণ নির্বাচনে লড়তে মনোনয়নও জমা দিয়েছিলেন নূরজাহান। যদিও শেষ মুহুর্তে তা প্রত্যাহার করে নেন তিনি।