করোনা আবহে হতে চলেছে দেশের প্রথম বিধানসভা নির্বাচন। শুক্রবার দুপুর সাড়ে ১২টায় নির্বাচন কমিশন বিহারের বিধানসভা ভোটের দিনক্ষণ ঘোষণা হল।  ২৮ অক্টোবর থেকে ৩ দফায় হবে ভোট।

 

 

আগামী ২৯ নভেম্বর বিহারের বর্তমান বিধানসভার মেয়াদ শেষ হচ্ছে। তার আগেই নতুন বিধানসভা গঠন করতে হবে। এর আগে ২০১৫ সালের ৩০ নভেম্বর ভোট হয়েছিল এই রাজ্যে। বিহার বিধানসভার আসন সংখ্যা ২৪৩।

বিহারের পিছন পিছন যে রাজ্যগুলি-তে বিধানসভার মেয়াদ শেষ হতে চলেছে- তামিলনাড়ু, পশ্চিমবঙ্গ, অসম, পদুচেরী। তামিলনাড়ু বিধানসভার মেয়াদ শেষ হচ্ছে ২০১২ সালের ২৪ মে, পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভার মেয়াদ শেষ হচ্ছে ২০২১-এর ৩০ মে, অসমের বর্তমান সরকারের মেয়াদ শেষ হচ্ছে ৩১ মে, ২০২১, পদুচেরী-র সরকারের মেয়াদ শেষ হচ্ছে ৮ জুন, ২০২১।

তাই বিহারের ভোটের সঙ্গে পশ্চিমবঙ্গের ভোটেরও একটা পরোক্ষ যোগাযোগ রয়েছে। বিহারের ভোট যথাসময়ে অনুষ্ঠিত হলে ধরে নেওয়া হচ্ছে, বিধি মেনে আগামী বছর এপ্রিল-মে মাসে পশ্চিমবঙ্গে বিধানসভা ভোট হবে।

এর আগে কোভিড পরিস্থিতির মধ্যে ভোটগ্রহণ আয়োজন না করার জন্য সুপ্রিম কোর্টে বেশ কিছু আবেদনও জমা পড়েছিল। তবে সেই সব আবেদন খারিজ করে শীর্ষ আদালত জানিয়ে দেয়, স্বাস্থ্যবিধি মেনে ভোটগ্রহণের আয়োজন করার দায়িত্ব নির্বাচন কমিশনেরই।

বর্তমানে নীতিশ কুমারের নেতৃত্বাধীন এনডিএ জোটের দখলে রয়েছে বিহার। পরপর কয়েকটি বিধানসভা ভোটে হেরে বিহার ধরে রাখতে মরিয়া বিজেপি শিবির। তাই নির্বাচনের দিন ঘোষণার আগেই বিহারবাসীর জন্য একাধিক উন্নয়ন প্রকল্পের সূচনা করেন প্রধানমন্ত্রী।