ফের বিস্ফোরক ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব। এবার তিনি মুঘল সাম্রাজ্যের বিরুদ্ধে ত্রিপুরার বিস্ময়কর স্থাপত্য বোমা মেরে উড়িয়ে দেওয়ার পরিকল্পনা আনলেন। সোমবার একবার বিবৃতিতে বলেন, ত্রিপুরার যে স্থাপত্য রয়েছে তা বিস্ময়কর। সেই স্থাপত্যকে বোমা মেরে উড়িয়ে দেওয়ার পরিকল্পনা করেছিল মুঘল সম্রাটরা। 

ত্রিপুরার এত অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব। সেখানে তিনি মন্তব্য করেছেন, ত্রিপুরাতে অনেক অত্যাশ্চর্য স্থাপত্য রয়েছে, যা অনেক মানুষের কাছে অজানা। এই স্থাপত্যে  নিয়ে মুঘল সম্রাটরাও আশ্চর্য হয়েছিলেন। তাঁরা বোমা মেরে ত্রিপুরার সমস্ত স্থাপত্য উড়িয়ে দিতে চেয়েছিলেন। তবে ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী এই বিষয়ে কোনও বিস্তারিত মন্তব্য করতে চান নি। ত্রিপুরার কোন স্থাপত্য মানুষের কাছে এখনও অজানা অথবা ত্রিপুরার স্থাপত্য যে মুঘল সম্র্রটারা গুঁড়িয়ে ফেলার পরিকল্পনা করেছিল, সেই তথ্য কোথা থেকে পেয়েছেন, সেই বিষয়ে কোনও মন্তব্য করতে তিনি অস্বীকার করেন। 

বিপ্লব কুমার দেব রাজ্যের পর্যটন কেন্দ্রগুলো, রাজ্যের সৌন্দর্য ও ঐতিহাসিক ঐতিহ্য সম্পর্কে সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রকাশ করার জন্য জনগণকে অনুরোধ করেছিলেন। তিনি মন্তব্য করেন, ত্রিপুরার জনগণ যদি কমপক্ষে যদি পাঁচটা পর্যটন কেন্দ্র সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রকাশ করেন, তাহলে রাজ্যের পর্যটনের জন্য আলাদা করে কোনও বিজ্ঞাপনের প্রয়োজন হবে না। তিনি মন্তব্য করেন, এভাবে সোশ্যাল মিডিয়ায় যদি মানুষ বেশি করে রাজ্যের সৌন্দর্য তুলে ধরেন, সেক্ষেত্রে এই পর্যটনকেন্দ্রগুলো আর বেশি করে প্রচারের আলো পাবে। 

মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার পর বিপ্লব কুমার দেব একাধিকবার বিতর্কিত মন্তব্য করে সংবাদের শিরোনামে এসেছেন। গত বছর তিনি মুঘল ও ব্রিটিশদের সঙ্গে দেশের কমিউনিস্টদের তুলনা করে বিতর্ক উস্কে দিয়েছিলেন।  তিনি অভিযোগ করেছিলেন, সকলেই ভারতীয় সংস্কৃতি ধ্বংস করে করার চেষ্টা করেছিলেন।  একটি সমাবেশে তিনি বলেছিলেন, ইন্টারনেট ও উপগ্রহ ভারতের জন্য অনেক পুরনো বিষয়। মহাভারতের সময় থেকে ইন্টারনেট ও উপগ্রহ বিদ্যমান ছিল।