বিশ্বকাপ ক্রিকেট চলছে। আর তার মধ্যেই মধ্যপ্রদেশের ইন্দোরে কর্তব্যরত এক সরকারি আধিরাকারিককে প্রকাশ্যে ক্রিকেট ব্যাট দিয়ে বেধাড়ক পেটানো হল। পেটালেন যে কেউ নন, ইন্দোর ৩ নং বিধানসভা কেন্দ্রের বিধায়ক তথা বিজেপির পশ্চিমবঙ্গের পর্যবেক্ষক কৈলাস বিজয়বর্গীয়র পুত্র আকাশ বিজয়বর্গীয়। তাঁর সঙ্গীরা পেটালেন অন্যান্য সরকারি কর্মীদের।

জানা গিয়েছে বুধবার সকালে এক মিউনিসিপাল অফিসার ইন্দোরের গঞ্জী কম্পাউন্ডের একটি অতি বিপজ্জনক বাড়ি ভাঙার কাজ তত্ত্বাবধানে গিয়েছিলেন। কাজ শুরু হওয়ার একটু পরেই দলবল নিয়ে সেখানে উপস্থিত হন আকাশ বিজয়বর্গীয়। অভিযোগ প্রথমে ওই সরকারি আধিকারিককে কাজ বন্ধ করে ওই জায়গা ছেড়ে চলে যাওয়ার নির্দেশ দেন আকাশ। কিন্তু আধিকারিক তাঁর কর্তব্যে গাফিলতি করতে চাননি, বরং স্থানীয় বিধায়ককে কেন বাড়িটি ভাঙা অত্যন্ত প্রয়োজনীয় তা বোঝানোর চেষ্টা করেন।

এই নিয়েই শুরু হয়েছিল কথা কাটাকাটি। কিন্তু হাত থাকতে আকাশের সম্ভবত মুখের কথা বেশিক্ষণ পছন্দ হয়নি। আচমকাই তিনি একটি ক্রিকেট ব্যাট নিয়ে এসে সংবাদমাধ্যমের ক্যামেরার সামনেই ওই আধিকারিককে বেদম পেটাতে শুরু করেন। সঙ্গে সঙ্গে তাঁর সঙ্গীরা ঝাঁপিয়ে পড়েন বাকি সরকারি কর্মীদের উপর। চলে অকথ্য গালাগাল ও মারধর।

এই ভিডিও প্রকাশ্যে আসতেই আকাশ বিরোধীদের তীব্র সমালোচনার মুখে পড়েছেন। একে তিনি বিজেপি বিধায়ক, তার উপর তাঁর বাবা কৈলাস বিজয়বর্গীয় বিজেপি মহাসচিব - ফলে স্বভাবতই এই ঘটনায় মুখ পুড়েছে বিজেপির। তবে স্থানীয় বিজেপি নেতারা অভিযোগ করেছেন ওই আধিকারিক নাকি বিপজ্জনক বাড়ির মালিকের কাছ থেকে ঘুষ চেয়েছিলেন।

তবে এইসব বলে পার পাননি আকাশ। আরও ১০ জন সঙ্গীর সঙ্গে তাঁর নামেও সরকারি কাজে বাধা ও সরকারি অফিসারকে নিগ্রহের অভিযোগে মামলা দায়ের করা হয়েছে। ঘটনার পরই তাঁকে গ্রেফতার করে মধ্যপ্রদেশের পুলিশ। বিশাল পুলিশ বাহিনীর প্রহরায় এদিন তাঁকে আদালতেও তোলা হয়।