জয়পুরের রাজ পরিবারের সদস্য তথা রাজস্থানের রাজসামান্দ লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি বিধায়ক দিয়া কুমারী দাবি করলেন তাঁরা 'ভগবান রামের পুত্র কুশের বংশধর'। শুধু মুখের কথাই নয়, তাঁর আরও দাবি এই কথা প্রমাণের উপযুক্ত নথিও রয়েছে তাঁর কাছে। প্রয়োজনে সুপ্রিম কোর্টে তা দাখিল করতেও পিছপা হবেন না।

অযোধ্যায় রাম জন্মভূমি-বাবরি মসজিদ জমি বিতর্ক মামলায় গত শুক্রবার মামলার অন্যতম পক্ষ 'রাম লালা বিরাজমান'-এর আইনজীবী কে পরাসরন-কে আদালত প্রশ্ন করে এখনও কি রঘুবংশের কেউ থাকেন অযোধ্যায়? কে পরাসরন জানিয়েছিলেন তাঁর কাছে এইরকম কোনও তথ্য নেই। তারপরেই নিজেকে রঘুবংশজাত বলে দাবি জানালেন দিয়া কুমারী।

তাঁর বক্তব্য তাঁর বাবা রামের পুত্র কুশের ৩০৯তম বংশধর। তাঁরা কুশওয়া ও কাছাওয়া গোষ্ঠীর লোক। তিনি চান যত দ্রুত সম্ভব অযোধ্যায় রামের মন্দির তৈরি হোক। আর তার জন্য যদি সুপ্রিম কোর্টে নিজেদের রঘুবংশজাত হিসেবে প্রাণ করতে হয়, তা করতেও তিনি রাজি আছেন। আদালতে কুশের বংশধর হিসেবে নিজেদের প্রমাণ করার মতো নথিপত্রও রয়েছে তাঁর কাছে।

শুধু তাঁরাই নন, দিয়া কুমারীর আরও দাবি শুধু ভারতেই নয়, গোটা বিশ্বজুড়েই রামের বংশধরা ছড়িয়ে আছেন। তাংর মতে সব ভারতীয়ই আসলে রামের বংশধর। আর তার জন্য ভারতীয়দের গর্ববোধ করা উচিত।