বাঁদররা ক্রমে মানুষ হয়ে যাচ্ছে। ফল খাওয়া ছেড়ে দিয়ে সিঙাড়া-ফ্রুটি খাচ্ছে। যা তাদের জন্য অস্বাস্থ্যকর। তাই বাঁদরদের উন্নয়নের জন্য মথুরায় একটি 'মাঙ্কি সাফারি' চালু করার আবেদন করলেন স্থানীয় সাংসদ তথা বলিউড তারকা হেমা মালিনী।

এদিন সংসদ ভবনের বাইরে মথুরার সাংসদ জানান আমাদের বাঁদরদের দেখভাল করা উচিত। সেই কথা মাথায় রেখেই তিনি তাঁর লোকসবা এলাকায়, যেখানে প্রচুর বাঁদর রয়েছে, সেখানে একটি 'মাঙ্কি সাফারি' বানানোর দাবি রেখেছেন তিনি। তাঁর মতে এটা হওয়া অত্যন্ত জরুরি।

সেই সঙ্গে তিনি জানিয়েছেন বাঁদরের স্বভাব ক্রমে মানুষের মতো হয়ে যাচ্ছে। ফলের গাছের অভাবে তাঁরা মানুষের খাদ্যাভাসে অভ্যস্ত হয়ে যাচ্ছে। এখন অবস্থা এমন দাঁড়িয়েছেন যে বাঁদরদের ফল দিলেও খাচ্ছে না। তারা মানুষের মতো সিঙারা খেতে চাইছে। ফ্রুটি খেতে চাইছে।

তাদের স্বাভাবিক খাদ্যাভ্যাসে ফেরানোর জন্য ড্রিমগার্লের আবেদন ভারতের অরণ্যগুলিতে ফলের গাছ বেশি করে লাগানো হোখ। তিনি জানান, বর্তমানে দঙ্গলে কাঁটাগাছই বেশি। সেই সব গাছে ফল হয়না। ফলে বাঁদরদের খাওয়ার অভাব হচ্ছে।