সামনেই আসছে প্রজাতন্ত্র দিবস। তার আগে দেশের সবকটি বিমানবন্দরকেই জঙ্গি হামলার আশঙ্কায় সতর্ক করা হয়েছে। তারমধ্যেই কর্নাটকের ম্য়াঙ্গালোর বিমানবন্দরের একটি টার্মিনালের বাইরে টিকিট কাউন্টারের কাছে একটি ব্যাগে পাওয়া গেল বিস্ফোরক। এই নিয়ে তীব্র বোমাতঙ্ক ছড়ায় বিমানবন্দরে। সিসিটিভি ক্যামেরার ফুটেজ পরীক্ষা করে দেখা এক সন্দেহভাজনকে চিহ্নিত করা গিয়েছে।

সোমবার দুপুরে আইইডি ভরা ব্য়াগটি পাওয়ার পরই বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষকে সতর্ক করা হয়। একটি বিচ্ছিন্ন এলাকায় দাবিহীনভাবে পড়েছিল একটি সন্দেহজনক ব্যাগ। সিআইএসএফ-এর ডিআইজি অনিল পাণ্ডে জানান, প্রাথমিক তদন্তেই তাঁরা ওই ব্যাগে আইইডি আছে বলে বুঝতে পারেন। তারপরই খবর দেওয়া হয় পুলিশ বিভাগকে। বিমানবন্দরে ছুটে আসেন পুলিশ কমিশনার পিএস হর্ষ-সহ পুলিশের একটি দল সহ।

পুরো বন্দর এলাকা ফাঁকা করে দিয়ে বম্ব ডিসপোজাল স্কোয়াড, ডগ স্কোয়াড এবং মেটাল ডিটেক্টর দিয়ে বিস্তৃত অনুসন্ধান চালানো হয়। সিআইএসএফ অফিসিয়ালরা পরে জানান, ওই সন্দেহভাজন ব্যাগের মধ্যে ট্রিগার বাদে আইইডি-র অন্যান্য সব উপাদানই ছিল। ব্যাগটি আরও বিশদে তদন্তের জন্য একটি বিশেষ ভ্যান-এ করে অন্যত্র নিয়ে যাওয়া হয়।

পুলিশ কমিশনার জানিয়েছেন, পুলিশ এসেই সাধারণ নাগরিকদের ব্যাগটি থেকে দূরে সরিয়ে দেয়। তবে এখন পরিস্থিতি শান্তিপূর্ণ বলেই জানিয়েছেন তিনি। সেইসঙ্গে, পুলিশ সবরকম সতর্কতা অবলম্বন করছে বলেই তাঁর দাবি। বিস্ফোরক ভরা সেই ব্যাগ সেখান থেকে নিয়ে যাওয়ার পর পুলিশের পক্ষ থেকে সিসিটিভি ফুটেজ যাচাই করা হয়। সেখানে দু'জন ব্যক্তিকে অটোরিকশায় করে এসে ব্যাগটি বিমানবন্দরে রেখে যেতে দেখা যায়।

পুলিশের পক্ষ থেকে পড়ে সন্দেহভাজন এক ব্যক্তির ও যে অটোয় করে তারা এসেছিল, তার ছবি প্রকাশ করা হয়। সেই ছবিতে সাদা বেসবল ক্যাপ মাথায় এক ব্যক্তিকে দেখা গিয়েছে। তার পরণে ছিল কালো প্যান্ট ও নীল-সাদা ডোরাকাটা শার্ট। ফুটেজে স্পষ্ট তিনি নানাভাবে নিজের মুখ আড়াল করার চেষ্টা করছেন।