সীমান্তে অস্ত্র বিরতি লঙ্ঘন করার পর এবার নতুন চাল পাকিস্তানের। ভারত সন্ত্রাসবাদে মদত দিচ্ছে। আর সীমান্তে অস্ত্র বিরতি লঙ্ঘন করছে ভারত। নতুন এই অভিযোগ তুলে সরব হয়েছে। যদিও পাকিস্তানের এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন ভারত বিদেশ মন্ত্রকের তরফ থেকে স্পষ্ট করে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে পাকিস্তানের এই অভিযোগ কল্পনাপ্রসূত ছাড়া আর কিছুই নয়। ভারতের বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র অনুরাগ শ্রীবাস্তব জানিয়েছেন, ভারত বিরোধী অপপ্রচার চালাচ্ছে পাকিস্তান। তাদের অভিযোগের সপক্ষে প্রমাণ দেওয়ার তথাকথিত দাবির কোনও বিশ্বাসযোগ্যতা নেই। তিনি আরও বলেন সীমান্তে হামলা চালানোর পর পাকিস্তান মনগড়া কথা বলতে শুরু করেছে। 

পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সাহ মাহমুদ কুরেশি ও সেনাাহিনীর মুখপাত্র জেনারেল বারব ইফতিকার একটি সংবাদ সম্মেলনে দাবি করেছেন পাকিস্তানের সন্ত্রাসবাদে হাত রয়েছে ভারতের। ভারতীয় কূটনীতিকদের অডিও ক্লিপও তাদের হাতে রয়েছে বলে দাবি করা হয়েছিল। সেই ঘটনারই পাল্টা মন্তব্য করে ভারত জানিয়েছেন ভারত এজাতীয় কোনও ঘটনার সঙ্গে জড়িয়ে নেই। বিদেশ মন্ত্রকের তরফ থেকে জানান হয়েছে পাকিস্তানের এই মন্তব্যের বিরোধিতা করেছে আফগান সরকারও। পাশাপাশি জানিয়ে দেওয়া হয়েছে তাদের মাটি থেকে সন্ত্রাসবাদী কার্যকলাপের জন্য অন্যকোনও দেশকে ছাড় দেওয়া হবে না। 

বিদেশ মন্ত্রকের সচিব অনুরাগ শ্রীবাস্তব বলেন, পাকিস্তান মিথ্যা অভিযোগ তোলার পাশাপাশি মিথ্য তথ্যও পেশ করছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি। পাশাপাশি তিনি জানিয়ে দেন গোটা বিশ্বই তাদের এই কার্যকলাপ সম্পর্কে অবগত রয়েছে। পাশাপাশি তিনি বলেন বারবারই ভারত প্রমাণ দিয়ে আসছে যে ইসলামাবাদ সন্ত্রাসবাদের স্পন্সারদাতা। ভারতের এই অবস্থানের বিরোধিতা করতেই পাকিস্তান মিথ্যা অভিযোগ ও তথ্য পেশ করছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি। বিশ্বের বাকি দেশগুলিও পাকিস্তানের কথা বিশ্বাস করতে না বলেও দাবি করেন তিনি। পাশাপাশি তিনি আরও বলেন যে পাকিস্তান যে অভিযোগ তুলছে ভারতের বিরুদ্ধে তা নিয়ে বিশ্বের অন্য দেশগুলি বিবেচনা করবে। পাশাপাশি ভারতের পক্ষ থেকে পাকিস্তানকে সীমান্ত সন্ত্রাস বন্ধ করার জন্য বলা হয়েছে।